লন্ডন: সন্ত্রাসের শিকার হওয়া লন্ডনের নাশকতাস্থলে যাচ্ছেন ওই দেশের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। ইতিমধ্যেই লন্ডনের একাধিক স্থানের হামলাকে সন্ত্রাসবাদী হামলা বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। জঙ্গি হামলার পর ব্রিটেন জুড়ে জারি হয়েছে সতর্কতা৷ জরুরি বৈঠকে বসতে চলেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে৷

টেমস নদীর উপরে লন্ডন ব্রিজের উপরে নাশকতায় প্রাণ হারিয়েছেন একাধিক সাধারণ মানুষ। লন্ডন শহরেই আরও দুই স্থানে ঘটেছে নাশকতার ঘটনা।  ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “পুলিশ ও নিরাপত্তা কর্মীদের তথ্য অনুযায়ী আমরা একে সন্ত্রাসী হামলা বলতে পারি। খুব দ্রুতই এর তদন্ত চলছে। পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বাহিনীকে আমি কৃতজ্ঞতা জানাই।”

অন্যদিকে লন্ডনের একাধিক স্থানে হামলার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সোশ্যাল সাইট ট্যুইটারে ট্রাম্প লিখেছেন, “লন্ডন সহ সমগ্র যুক্তরাজ্যকে সাধ্যমতো সাহায্য করবে আমেরিকা। আমরা তোমাদের পাশে আছি। ঈশ্বর মঙ্গল করুন!” অন্য একটি ট্যুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেছেন, “আমাদের আরও অনেক স্মার্ট, সজাগ এবং কড়া হতে হতে হবে। একটা বিচারালয় দরকার যা আমাদের অধিকার আমাদের কাছে ফিরিয়ে দেবে। নিরাপত্তার স্বার্থে দেশে পর্যটক প্রবেশের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করতে হবে।”