নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সময়কালে লোকসভায় পাশ হয়েছে ২০৫টি বিল৷ বুধবার অন্তিম দিনে লোকসভার কাজের মূল্যায়ণে উঠে আসে এই তথ্য৷ স্পিকার সুমিত্রা মহাজন ষোড়শ লোকসভার কাজে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন৷

লোকসভায় চলছিল বাজেট অধিবেশন৷ বুধবার ছিল অধিবেশনের শেষদিন৷ শেষবার বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্পিকার সুমিত্রা মহাজন জানান, ২০১৪ সালের জুন মাস থেকে সংসদের নিম্নকক্ষে ২১৯টি বিল পেশ হয়েছে৷ তার মধ্যে ২০৫টি বিল পাশ করিয়েছেন সাংসদরা৷ অর্থাৎ সাফল্যের হার ৯০ শতাংশের উপর৷ এরপরই সংসদের কাজ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি৷

 

এবারও বিরোধীদের ব্যাপক হইহট্টগোলের সাক্ষী থেকেছে সংসদ৷ দফায় দফায় মুলতবি হয়েছে৷ নানা ইস্যুতে সরকারপক্ষকে তোপ দেখে সংসদের কাজ পণ্ড করেছেন বিরোধী দলের সাংসদরা৷ স্পিকার জানান, পাঁচবছরে ৩৩১ দিন কাজ হয়েছে৷ ঘণ্টার হিসাবে ১৬১২ ঘণ্টা৷ তার মধ্যে ৪২২ ঘণ্টায় বিরোধীদের বিরোধিতার জেরে কোনও কাজ হয়নি৷ ভাষণে একটি গুরুত্বপূর্ণ মন্তব্য করেন স্পিকার৷ নিরপেক্ষভাবে সাংসদদের অনুধাবন করতে বলেন যে লোকসভায় তারা যাদের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন তাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পেরেছেন কিনা৷ আর কী কাজ করা বাকি৷ আমাদের নিরপেক্ষভাবে তা বিশ্লেষণ করতে হবে৷

নানা বিরোধীতা স্বত্ত্বেও সংসদের কাজে সহযোগিতা ও মসৃণ ভাবে কাজ চালানোর জন্য সাংসদদের ধন্যবাদ জানান সুমিত্রা মহাজন৷ পাশাপাশি সাংসদদের কাছে ক্ষমাও চেয়ে নেন যদি তাঁর মন্তব্যে কোনও সাংসদ যদি মর্মাহত হন৷ প্রসঙ্গত নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর ২০১৪ সালের ৬ জুন লোকসভার স্পিকার নিযুক্ত হন সুমিত্রা মহাজন৷

 

এবারের লোকসভায় যে গুরুত্বপূর্ণ বিল পাশ হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম হল, ব্ল্যাক মানি এন্ড ইমপোজিশন অফ ট্যাক্স বিল ২০১৫, জুভেনাইল জাস্টিস বিল ২০১৫, ইনসোলভেন্সি এন্ড ব্যাঙ্করাপ্টসি কোড ২০১৬, বেনামি ট্রানস্যাকশন অ্যামেন্ডমেন্ট বিল ২০১৬, জিএসটি বিল ২০১৭, আধার বিল ২০১৬, মেন্টাল হেলফকেয়ার বিল ২০১৭, ফিউজিটিভ ইকোনমিক অফেন্ডার বিল ২০১৮ ইত্যাদি৷