মুম্বই- সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে মর্দানি ২-এর ট্রেলার। ইতিমধ্যেই ছবির ট্রেলার সাড়া ফেলেছে। কিন্তু এরই মাঝে আইনি কোপ পড়ল রানি মুখোপাধ্য়ায় অভিনীত এই ছবির উপরে।

ছবির ট্রেলারেই দেখা যাচ্ছে, কোটা শহরে একের পরে এক মহিলার ধর্ষণ হচ্ছে। আর শিবাণী শিবাজী রাঠৌর (রানি অভিনীক চরিত্র) সেই ধর্ষকদের খোঁজ করছে। আর এই ধর্ষকদের অধিকাংশেরই বয়স ১৮-র নীচে। এখানেই শুরু হয়েছে সমস্যার সূত্রপাত।

ছবিতে কোটা শহরকে এভাবে দেখানো হয়েছে বলেই বাধ সেধেছেন কোটারই সাংসদ ওম বিড়লা। তাঁর দাবি, কোটা শিক্ষার দিক থেকে এগিয়ে রয়েছে। এখানে নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিন্তু মর্দানি ছবিতে পুরো অন্য দৃষ্টিভঙ্গিতে তুলে ধরা হয়েছে এই শহরকে। তাই এই ছবির বিরোধিতা করছেন তিনি। এই বিষয়ে তীব্র বিরোধিতা করার জন্য আরও অনেকের সঙ্গেই কথা বলবেন।

তিনি বলছেন, যে ভাবে একটি শহরের নামকে ছবির মাধ্যমে কালিমালিপ্ত করা হচ্ছে, তা গ্রহণযোগ্য নয়। একটা কাল্পনিক ছবি এভাবে একটি শহরের নাম ব্যবহার করবে, সেটা মোটেই ঠিক নয়।

ট্রেলারে এমনকী এও বলা হচ্ছে, যে বেশ কয়েকটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে এই ছবি তৈরি। দেখা যাচ্ছে, এক ধর্ষক অল্প বয়সি মেয়েদের অপহরণ করে মর্মান্তিক ভাবে ধর্ষণ করছে। পুলিশ আধিকারিক শিবাণী শিবাজি রায়ের ভূমিকায় অভিনয় করছেন রানি মুখোপাধ্য়ায়। এই পুলিশ আধিকারিক দোষীকে ২ দিনের মধ্যে গ্রেফতার করার প্রতিজ্ঞা নেয়।

ছবির ট্রেলার মুক্তি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কোটার বাসিন্দারা ছবি থেকে শহরের নাম বাদ দেওয়ার দাবি করেছেন। এমনকী ছবির বেশ কিছু অংশের শ্যুটিংও হয়েছে এই শহরেই।