নয়াদিল্লি: ভোটগণনার আগের দিন সবকটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সতর্ক করল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ বুধবার এক সতর্কবার্তায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে রাজ্যগুলিতে হিংসার একাধিক ঘটনা ঘটতে পারে৷ বিভিন্ন রাজ্যে উত্তপ্ত হতে পারে পরিস্থিতি৷ ফলে আইন শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে৷

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে খবর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেহেতু রাজ্যের হাতে, ফলে রাজ্যগুলিকেই সতর্ক থাকতে হবে৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে প্রতি রাজ্যের মুখ্যসচিব ও ডিজিকে এক বিবৃতি পাঠানো হয়েছে৷ যেখানে পরিষ্কার উল্লেখ করা হয়েছে হিংসার আশংকার কথা৷ বলা হয়েছে ভোটগণনার দিন বিভিন্ন রাজ্যে হিংসা ছড়াতে পারে৷ তাই সতর্ক থাকতে হবে রাজ্য পুলিশ ও প্রশাসনকে৷

আরও পড়ুন : ভোট গণনা কেন্দ্রে আমার উপর প্রাণঘাতী হামলা হতে পারে: বিস্ফোরক অর্জুন

স্ট্রংরুমের চারপাশে ও ভোটগণনা কেন্দ্রের বাইরে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ এছাড়াও জানানো হয়েছে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার যাবতীয় দায়িত্ব নিতে হবে প্রশাসনকে৷

উল্লেখ্যে বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২৩শে মে সকাল ৮.১০ নাগাদ ইভিএম গণনা শুরু হবে৷ প্রতিটি রাউন্ডের গণনার পরে দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক সই করবেন এবং তারপরে পরের রাউন্ডের ইভিএম নিয়ে এসে গণনা শুরু হবে৷ এভাবেই রাউন্ডগুলি চলবে৷ ইভিএমের পরে ভিভিপ্যাট গণনা শুরু হবে৷ এর জন্য বিধানসভা প্রতি ৫টি করে বুথ লটারিতে বেছে নেওয়া হবে৷ ভিভিপ্যাট গণনার জন্য কাউন্টিং বুথ তৈরি করা হবে৷

আরও পড়ুন : গ্রহের অবস্থান বলছে নাও মিলতে পারে Exit poll, বড় ভূমিকা থাকবে পশ্চিমবঙ্গের

প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রের পাঁচটি ইভিএম এবং ভিভিপ্যাট গণনা শুরু হবে৷ যদি ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটের গণনার মধ্যে গরমিল না থাকে তাহলে পরবর্তী ক্ষেত্রে ইভিএমের গণনা শুরু হবে৷ এরপর ভিভিপ্যাটের গণনা শুরু হবে৷

এই গণনা ঘিরেই তৈরি হবে হিংসা, আশংকা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের৷ মন্ত্রকের দাবি উত্তর প্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও ত্রিপুরার পরিস্থিতি জটিল হতে পারে৷ ভোটগণনায় বাধাদানের জন্য তৈরি করা হতে পারে অশান্তির পরিবেশ৷ এই রাজ্যগুলিকে প্রস্তুত থাকতে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷