উপহার পেতে ভালবাসেন না এমন মানুষ পাওয়া যায় না। কিন্তু পুরুষদের ক্ষেত্রে উপহার দিতে গিয়ে দেখা যায় এই সমস্যা । জন্মদিন হোক বা অন্য যে কোন কারণে কোন পুরুষকে উপহার দিতে গেলে অসুবিধার মধ্যে পড়তে হয় মানুষজনকে। নির্দিষ্ট কিছু জিনিসের বাইরে কি উপহার দেওয়া যায় তাই নিয়ে দেখা যায় সমস্যা।

সাধারণত যে কোন মহিলাকে উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে উপহার দাতাদের কাছে থাকে অনেক গুলি রাস্তা। কিন্তু পুরুষদের ক্ষেত্রে সেই সুযোগ থাকে না। ফলত জামা বা পারফিউমের বাইরে অনেকেই ভাবতে পারেন না নতুন কিছু উপহারের কথা। আর সেই কারণেই এবারে অ্যামাজনের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে নতুন loenz brown watch and wallet combo। পুরুষদের কাছে মানিব্যাগ যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। আর সেই সঙ্গে ঘড়িও পুরুষদের ব্যক্তিত্বের সঙ্গে ভীষণ ভাবে মানানসই। সেই কারণেই এই বিশেষ কম্বো সেট নিয়ে আসা হয়েছে অ্যামাজনের তরফে।

 

এই সেটের উপরে রয়েছে আকর্ষণীয় ছাড়ের সুবিধা। ৮২ শতাংশ ছাড় পাওয়ার ফলে ক্রেতাদের খরচ করতে হবে মাত্র ৩৬৫ টাকা। এর জেরে ক্রেতারা বাঁচাতে পারবেন ১৬৩৪ টাকা। অন্যদিকে অ্যামাজন পে ব্যবহার করলে অথবা কেনার সময়ে icici ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করলে ক্রেতারা পাবেন অতিরিক্ত ক্যাশব্যাকের সুবিধাও। একেবারে চামড়া দিয়ে এই মানিব্যাগ টি তৈরি করার ফলে তা যে কোন পুরুষের কাছে পছন্দের বিষয় হবে। বেশিরভাগ যুবকদের কাছেও মানিব্যাগ যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ এবং অনেকেই সেই কারণের জন্য চামড়ার মানিব্যাগ খুজে থাকেন। আর এত কম দামের মধ্যে এই সেট উপহার দেওয়া হলে যে কারোর কাছেই তা অত্যন্ত পছন্দের হয়ে উঠবে বলে আশা করাই যায় ।

 

পাশপাশি হাতঘড়ি যুবকদের কাছে ফ্যাশান স্টেটমেন্টের একটি অংশ । সেই ফ্যাশান বজায় রাখার জন্য এই মানিব্যাগের সঙ্গে পাবেন এক নতুন ডিজাইনের হাত ঘড়ি। আর সেটি যে অল্প বয়সী যুবকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণের একটি বিষয় হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। একসঙ্গে এই সেট যে কাউকেই উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে একেবারে আদর্শ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।