নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: তৃতীয়বারের জন্য সাংসদ হওয়া সম্ভব হল না তৃণমূলের রত্না দে নাগের ৷ পর পর দুবার হুগলি লোকসভা কেন্দ্র থেকে জিতলেও এবার তাঁর জয়ের রথ আটকে দিলেন বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়। তবে এই কেন্দ্রটির একটা তৎপর্য রয়েছে কারণ ৬৭ বছর আগে বিজেপির এক পূর্বসূরী ওই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন৷

১৯৫২ সালে অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভার প্রার্থী হিসেবে নির্মল চট্টোপাধ্যায় ওই কেন্দ্র থেকে জিতেছিলেন ৷ সেবারের লোকসভায় গোটা দেশে হিন্দু মহাসভা মোট চারটি আসন পেয়েছিল৷ এই নির্মল চন্দ্র চট্টোপাধ্যায় হলেন সিপিএম নেতা তথা লোকসভার প্রাক্তন অধ্যক্ষ সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের বাবা৷

এই হুগলি কেন্দ্র থেকে গত লোকসভায় বিজেপি প্রার্থী হয়েছিলেন দলের থিঙ্কট্যাঙ্কের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ও বর্ষীয়ান সাংবাদিক চন্দন মিত্র৷ কিন্তু ২০১৪ লোকসভায় চন্দন মিত্র তৃণমূলের প্রার্থী রত্না দে নাগের কাছে পরাজিত হন ৷ শুধু পরাজিত নয় তাঁর স্থান ছিল তৃতীয় এবং দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন সিপিএমের প্রদীপ সাহা ৷ তবে গত বছর এই চন্দন মিত্র দল বদল করে তৃণমূলে যোগ দেন৷ তার আগে ২০০৯ সালে রত্না দে নাগ নিকটতম প্রার্থী সিপিএমের রূপচাঁদ পালকে হারিয়েছিলেন হুগলি কেন্দ্র থেকে৷

সেদিক থেকে এবারেও ওই কেন্দ্রে লকেট চট্টোপাধ্যায়ের লড়াই সহজ ছিল না৷ কিন্ত ভোটের আগে বেশ কয়েকদিন ধরে লকেট দলীয় নেতা-কর্মী সঙ্গে নিয়ে চষে বেড়িয়েছেন ওই কেন্দ্রের বিভিন্ন এলাকা ৷ মোদীর গেরুয়া হাওয়াকে কাজে লাগিয়ে এবার তার সুফলও পেলেন অবশেষে টলিউডের এই অভিনেত্রী৷