নয়াদিল্লি: শুরু হচ্ছে আনলকের দ্বিতীয় পর্যায়। সোমবারই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সেই ঘোষণা করা হয়েছে। তবে আনলকের দ্বিতীয় পর্যায়ে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলেও কনটেনমেন্ট জোনের ক্ষেত্রে জারি থাকছে কড়া নিয়ম।

সোমবার যে নির্দেশিকা প্রকাশিত হয়েছে, তাতে বলা হয়েছে যে কনটেনমেন্ট জোনে ৩১ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন জারি থাকবে। প্রত্যেক জেলার ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টরের ওয়েবসাইটে কনটেনমেন্ট জোনের তালিকা পাওয়া যাবে।

ওই জোনগুলিতে আগের মতই লকডাউনের নিয়ম জারি থাকবে। অর্থাৎ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ি থেকে বেরতে পারবেন না। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে ওই অঞ্চলে।

নতুন গাইডলাইনে বেশ কিছু ক্ষেত্রে নিয়মের শিথিলতা বাড়ানো হয়েছে। যেমন নাইট কার্ফুর সময়সীমাতে বদল আনা হয়েছে। এবার থেকে নাইট কার্ফু জারি থাকবে রাত ১০টা ভোর পাঁচটা পর্যন্ত। এতদিন পর্যন্ত কোনও দোকানে পাঁচজনের বেশি কারোর দাঁড়ানোর অনুমতি ছিল না। নতুন পর্যায়ে পাঁচজনের বেশি যেতে পারবে। তবে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে সবাইকে। আর তা মেনেই দোকানে দাঁড়ানোর কথা বলা হয়েছে দ্বিতীয় পর্যায়ের আনলকে।

কনটেনমেন্ট জোনের বাইরে অন্যান্য সব ক্ষেত্রে ছাড় থাকলেও যে সব জায়গাগুলি এখনই খুলছে না সেগুলি হল মেট্রো রেল, সিনেমা হল, জিম, সুইমিং পুল, বার, অডিটোরিয়াম ইত্যাদি। এছাড়াও ধর্মীয় অনুষ্ঠান, সামাজিক অনুষ্ঠান, খেলা কিংবা বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান আপাতত বন্ধ থাকছে বলে গাইডলাইনে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, কনটেনমেন্ট জোনের বাইরে কোনও কোনও ক্ষেত্র খোলা থাকবে সেই সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার। সংশ্লিষ্ট রাজ্য আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করেই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবে।

লকডাউন বাড়িয়েছে মধ্যপ্রদেশ সরকারও। এছাড়াও বহু রাজ্য একে একে লকডাউন আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা করছে। ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারও লকডাউন বাড়িয়েছে। আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়েছে লকডাউন।

দেশে ক্রমশ বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। হু হু করে ছড়াচ্ছে মারণ এই সংক্রমণ। উদ্বেগ বাড়ছে কেন্দ্রের।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV