চেন্নাই: দেশ জুড়ে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদবিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার। ইতিমধ্যে সরকারি ভাবে বেশ কিছু পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। কিন্তু তার পরেও আক্রান্তের সংখ্যা সামনে আসাতে উদ্বেগ বাড়ছে কেন্দ্রের। পাশাপাশি এই পরিস্থিতিতে সব দিক সামাল দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের সঙ্গে যুক্ত হয়ে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করে চলেছে একাধিক রাজ্য সরকার। তার মধ্যে এবারে লক ডাউন শিথিল করা হল তামিলনাড়ুতে।

তামিলনাড়ু প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে আগামী ১০ অগষ্ট থেকে যে সকল মন্দির মসজিদের বার্ষিক আয় ১০ হাজারের কম, সেই সকল মন্দির মসজিদ সহ অন্যান্য ধর্মস্থান খোলা হবে। পাশপাশি রাজ্য জুড়ে খোলা হবে স্কুলগুলিও। তবে তাও সরকারের নিয়ম মেনেই।

করোনা অতিমারীর কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে বন্ধ ছিল সব ধরনের ধর্মস্থানগুলি। পাশপাশি রাজ্য জুড়ে জারি করা হয়েছিল সম্পূর্ণ লক ডাউন। মনে করা হচ্ছে চেন্নাই সহ তামিলনাড়ুর বেশ কিছু জায়গাতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রীকে পালানিস্বামী। তিনি আরও জানিয়েছেন, লক ডাউন শিথিল হলেও সকলকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে বেশ কিছু মন্দির মসজিদ সহ অন্যান্য ধর্মস্থানগুলিতে মানুষ যেতে পারবেন। প্রয়োজনে প্রার্থনাও করতে পারবেন। আর এই নির্দেশিকা পঞ্চায়েত, শহর, এবং মিউনিসিপালিটি এলাকার জন্য প্রযোজ্য বলেও জানানো হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী সকলকে নিজ দায়িত্বে সতর্ক হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। এছাড়া সরকারের প্রদত্ত নিয়ম নীতি যাতে সকলে মেনে চলেন তা নিয়েও অনুরোধ করেছেন। দেশ জুড়ে যেখানে এই মুহূর্তে করোনা আতঙ্ক সকলের মধ্যেই বিরাজমান, সেই পরিস্থিতির মধ্যে দাঁড়িয়ে তামিলনাড়ু সরকারের এই পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে সাহসিকতার বলে মনে করছেন অনেকেই।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও