প্রতীতি ঘোষ, হাবড়া : যে কোন মূল্যে করোনাকে রুখতে বদ্ধ পরিকর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা প্রশাসনকে মুখ্যমন্ত্রী সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন। সেই নির্দেশ মেনেই কিভাবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে করোনা প্রভাবিত অঞ্চলে লক ডাউন কার্যকর করা হবে, তা নিয়ে অনুষ্ঠিত হল এক প্রশাসনিক বৈঠক।

কোন ভাবেই করোনা আর বাড়তে দেওয়া যাবে না। বর্তমানে জেলা সদর বারাসাত মহকুমায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। এই মহকুমা অন্তর্গত হাবড়া পৌর অঞ্চলে বর্তমানে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুসারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ জন, এদের মধ্যে ১৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। তবে নতুন করে যাতে কেউ আর করোনা আক্রান্ত না হয়, সেজন্য কন্টেনমেন্ট অঞ্চল গুলিতে কঠোর ভাবে লক ডাউন পালনের নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

ওই অঞ্চলের বাসিন্দারা যাতে একান্ত জরুরী কাজ ছাড়া বাইরে না বেরোন, সেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে । মানুষকে মাস্ক ব্যবহার এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বার বার অনুরোধ করছে প্রশাসন । রাজ্য সরকারের তরফে বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে কন্টেনমেন্ট জোন গুলিতে ফের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। লকডাউন কার্যকর করতে হাবড়া প্রশাসনের তরফে হাবড়া পৌরসভাতে জরুরী বৈঠকের আয়োজন করা হয় এদিন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন হাবড়া থানার ভারপ্রাপ্ত আই.সি গৌতম মিত্র, পৌর প্রশাসক মণ্ডলীর পাঁচ সদস্য, এছাড়া পুরসভার প্রাক্তন জনপ্রতিনিধিরা। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় লকডাউন কঠোরভাবে কার্যকর করা হবে করোনা প্রভাবিত এলাকায়।

কন্টেনমেন্ট জোনের বাইরে সর্বত্র বাজার ঘাট খোলা থাকবে এবং কনটেইনমেন্ট জনের 60 মিটার পর্যন্ত পুরোপুরি লকডাউন জারি থাকবে, প্রশাসনিক বৈঠকের পর এমনটাই জানান হাবড়া পৌর সভার পৌর প্রশাসক নিলিমেশ দাস।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ