স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: রাস্তার কাজের জন্য দূষিত হচ্ছে পরিবেশ৷ এই অভিযোগ তুলে সোমবার সকালে হাওড়ায় পথ অবরোধ করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ তাঁদের অভিযোগ, রাস্তার কাজের জন্য যে যন্ত্র ব্যবহার করা হচ্ছে, তা অবিলম্বে সরিয়ে ফেলতে হবে৷ এদিকে বাসিন্দাদের অবরোধের জেরে সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনে ব্যাপক যানজট হয় হাওড়া-আমতা রোডে৷ সমস্যার মধ্যে পড়েন নিত্যযাত্রীরা৷ আটকে পড়ে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা৷ পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে অবরোধ ওঠে৷ স্বাভাবিক হয় যান চলাচল৷

স্থানীয় ও প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, হাওড়ার দাশনগর থানা বালিটিকুরি খালধারপাড়ে গত কয়েকদিন ধরে মিক্সিং মেশিনের সাহায্যে রাস্তা নির্মাণের কাজ চলছে৷ পিচ ও স্টোনচিপ মাখানো হচ্ছে ওই যন্ত্রের সাহায্যে৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, এর জেরে সকাল থেকে গোটা এলাকা কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যাচ্ছে৷ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাঁদের৷ চরম ভোগান্তির মুখে পড়তে হচ্ছে অসুস্থ ব্যক্তিদের৷ এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে শ্বাসকষ্টের সমস্যা মারাত্মকভাবে বেড়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷

স্থানীয়দের দাবি, ওই যন্ত্র অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য পুরসভাকে জানান এলাকার বাসিন্দারা৷ কিন্তু তার পরও হাওড়া পুরসভা উদাসীন ছিল বলে অভিযোগ৷ তাই বাধ্য হয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা সোমবার সকালে হাওড়া-আমতা রোড অবরোধ করেন৷ রাস্তার কাজের জন্য ব্যবহৃত ওই যন্ত্র দ্রুত সরিয়ে নেওয়ার দাবি তোলেন৷ অবরোধকারীরা দাবি করেন, ওই যন্ত্র না সরানো পর্যন্ত অবরোধ চালিয়ে যাবেন৷

এর ফলে ওই রাস্তায় আটকে পড়ে একাধিক যানবাহন৷ যাত্রীবাহী বাস, স্কুলে যাওয়ার গাড়ি৷ এর ফলে নিত্যযাত্রী থেকে শুরু করে বহু মানুষ ভোগান্তির মুখে৷ সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় স্কুল পড়ুয়াদেরও৷ সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে যায় দাশনগর থানার পুলিশ৷ তারা গিয়ে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলেন৷ পুরসভার তরফেও লোকজন এসে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলেন৷ দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার আশ্বাস দেন৷ তার পর অবরোধ ওঠে৷ স্থানীয় কাউন্সিলর ত্রিলোকেশ মণ্ডল জানান, রাস্তা তৈরির কাজ হচ্ছে ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায়৷ তার জন্যই ঢালাইয়ের জন্য মেশিন আনা হয়েছে৷ কয়েকদিনের মধ্যেই কাজ শেষ হয়ে যাবে৷ আর কোনও সমস্যা হবে না৷

এর পর অবরোধ ওঠে৷ কিন্তু ততক্ষণে ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে৷ ফলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে কেটে যায় দীর্ঘক্ষণ৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ