লিভারপুল: সবে মাত্র ১২ রাউন্ডের ম্যাচ শেষ হয়েছে৷ লিগ চ্যাম্পিয়নের দৌড়ে এখনও অনেক উত্থান-পতন দেখতে পাওয়া এমন কিছু অস্বাভাবিক নয়৷ তবে এটা নিশ্চিত যে, খেতাব দখলের লড়াইয়ে শুরুতেই বাকিদের থেকে বড়সড় একটা ব্যবধান তৈরি করে ফেলল লিভারপুল৷ বিশেষ করে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটিকে বেশ খানিকটা পিছনে ফেলে দিল গতবারের রানার্সরা৷

অ্যানফিল্ডে প্রিমিয়র লিগের মুখোমুখি লড়াইয়ের আগে দু’দলের মধ্যে ফারাক ছিল ৬ পয়েন্টের৷ ১১ ম্যাচে লিভারপুল দাঁড়িয়েছিল ৩১ পয়েন্টে৷ সমসংখ্যক ম্যাচে সিটির দখলে ছিল ২৫ পয়েন্ট৷ এই ম্যাচটায় গুয়ার্দিওলার দল ক্লপদের টেক্কা দিতে পারলে ব্যবধান তিন পয়েন্টে কমিয়ে আনতে পারত৷ তা হলে দ্বি-পাক্ষিক লড়াইটা শুরু থেকেই আরও টান টান হতে পারত৷ কিন্তু বাস্তবে দেখা গেল অন্য ছবি৷ ঘরের মাঠে ম্যান সিটিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রিমিয়র লিগের শীর্ষস্থান আরও কিছুটা মজবুত করল লিভারপুল৷

আরও পড়ুন: আর্সেনালকে হারিয়ে দ্বিতীয়স্থানে উঠে এল লেস্টার

শুরু থেকেই ম্যাচের রাশ ছিল লিভারপুলের হাতে৷ ম্যাচের প্রথমার্ধেই জোড়া গোলে এগিয়ে যায় তারা৷ দ্বিতীয়ার্ধে সিটির ঘাড়ে আরও একটি গোল চাপায় ক্লপরা৷ শেষ দিকে ব্যবধান কমাতে সক্ষম হলেও বিশেষ প্রভাবশালী ফুটবল খেলতে ব্যর্থ হয় ম্যাঞ্চেস্টার৷ লিভারপুলের হয়ে প্রথমার্ধে ফ্যাবিনহো ও মহম্মদ সালাহ গোল করেন৷ দ্বিতীয়ার্ধে গোব করেন সাদিও মানে৷ শেষ বেলায় সিটির হয়ে ব্যবধান কমান বার্নার্দো সিলভা৷

ম্যাচের ৬ মিনিটের মাথায় ফ্যাবিনহোর গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল৷ ১৩ মিনিটে রবার্টসনের পাস থেকে ব্যবধান বাড়িয়ে ২-০ করেন সালাহ৷ ৫১ মিনিটে হেন্ডারসনের পাস থেকে দোল করে স্কোরলাআন ৩-০ করেন মানে৷ ৭৮ মিনিটে সিলভার গোলে ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচের ফলাফল ৩-১ করে ম্যাঞ্চেস্টার৷

আরও পড়ুন: মেসির ম্যাজিক শো’য়ে ধরাশায়ী সেল্টা ভিগো

এই জয়ের সুবাদে লিভারপুলের পয়েন্ট দাঁড়ায় ১২ ম্যাচে ৩৪৷ সিটি পড়ে থাকে ১২ ম্যাচে ২৫ পয়েন্টে৷ অর্থাৎ দু’দলের মধ্যে ৯ পয়েন্টের ব্যবধান তৈরি হয়ে৷ লিভারপুল শীর্ষস্থানে আরও জাঁকিয়ে বসলেও সিটি নেমে যায় চতুর্থ স্থানে৷ ১২ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে লেস্টার সিটি৷ ২৬ পয়েন্ট নিয়েই তিন নম্বরে আছে চেলসি৷ অন্য ম্যাচে ব্রিটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিয়নকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ১৫ থেকে এক লাফে ৭ নম্বরে চলে আসে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড৷ তাদের সংগৃহীত পয়েন্ট ১২ ম্যাচে ১৬৷