বার্সেলোনা: আগামী বছর কাতালান ক্লাবে শেষ হচ্ছে লিওনেল মেসির চুক্তি। এরপর কাতালান ক্লাবে নতুন করে চুক্তি বাড়ানোর ইচ্ছে নেই আর্জেন্তাইন সুপারস্টারের। অর্থাৎ বর্তমান চুক্তি শেষের পরেই বার্সেলোনা ছাড়ছেন মেসি। এমন খবর বেশ কিছুদিন ধরে বিকোচ্ছিল হট-কেকের মতো। কিন্তু সেই জল্পনায় ইতি টানলেন বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিয়ে বার্তোমিউ। মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার খবরের সত্যতা উড়িয়ে বার্তোমিউ জানালেন কাতালান ক্লাব থেকেই ফুটবলকে বিদায় জানাবেন মেসি। একথা তাঁকে নিজেই জানিয়েছেন মেসি।

রবিবার ভিল্লারিয়ালকে বার্সেলোনা হারানোর পর স্থানীয় একটি নেটওয়ার্ককে বার্সা প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, ‘মেসি আমাকে নিজে জানিয়েছে সে তাঁর ফুটবল জীবন বার্সেলোনাতেই শেষ করবে। আমি এব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলতে পারব না কারণ আমাদের লিগের প্রতি এখন সম্পূর্ণরূপে ফোকাস রয়েছে। এছাড়া অনেক ফুটবলারদের সঙ্গেই চুক্তি সংক্রান্ত কথাবার্তা চলছে। কিন্তু মেসি আমাকে জানিয়ে দিয়েছে ও এখানেই থাকতে চায় আর আমরা ওকে আরও দীর্ঘ সময়ের জন্য সঙ্গে পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত।’

উল্লেখ্য, ২০১৭ শেষবার কাতালান ক্লাবের সঙ্গে শেষবার চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন মধ্যমনি লিও। যে চুক্তির বৈধতা শেষ হচ্ছে আগামী বছর। ক্লাবের অন্দরমহলের সমস্যা নিয়ে মেসি সেভাবে প্রকাশ্যে সরব না হলেও ২০১৯ ক্লাবের দলাদলি নিয়ে একবার মুখ খুলেছিলেন আর্জেন্তাইন। আর গত সপ্তাহেই রেডিও স্টেশন কাডেনায় জানানো হয় মেসি ভীষণভাবে অখুশি ক্লাবের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে এবং সে কারণেই ২০২১ পর বার্সেলোনাকে আলবিদা জানাবেন তিনি। যদিও প্রেসিডেন্টের কথায় কিছুটা চিন্তামুক্ত হলেন অনুরাগীরা।

এদিকে রবিবার ভিল্লারিয়ালের বিরুদ্ধে ৪-১ গোলে গুরুত্বপূর্ণ জয় তুলে নিল বার্সেলোনা। একইসঙ্গে চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে দারুণভাবে ভেসে রইল তারা। গোল না করলেও লা লিগার একটি মরশুমে সবচেয়ে বেশি (১৯) অ্যাসিস্টের রেকর্ড গড়েন আর্জেন্তাইন মহাতারকা। পাও তোরেসের আত্মঘাতী গোলে এদিন ম্যাচের তিন মিনিটেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। এরপর একে একে বার্সার হয়ে এদিন গোলগুলি করেন লুইস সুয়ারেজ, আতোয়াঁ গ্রিজম্যান এবং আনসু ফাতি।

ভিল্লারিয়ালের বিরুদ্ধে জয় ছাড়া অন্য কোন ফলাফল কার্যত চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড় থেকে ছিটকে দিত মেসিদের। যদিও এদিন সেটা হতে দেননি বার্সা ফুটবলাররা। লিগের চার ম্যাচ বাকি থাকতে বার্সেলোনার সংগ্রহে ৭৩ পয়েন্ট। শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে চার পয়েন্ট পিছিয়ে তাঁরা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ