রিয়াধ: নির্বাসন কাটিয়ে ফিরেই দেশেকে জেতানোর পাশাপাশি বিতর্কে জড়ালেন লিওনেল মেসি৷ শুক্রবার রাতে রিয়াধে চিরশত্রু ব্রাজিলের বিরুদ্ধে ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচে মেসির একমাত্র গোলে জেতে আর্জেন্তিনা৷

ফ্রেন্ডলি ম্যাচ হলেও মেসির আচরণসুভল মোটেই বন্ধুত্বপূর্ণ ছিল না৷ ম্যাচের মধ্যেই ব্রাজিল কোচ তিতে-কে ‘shut up’ বলেন মেসি৷ ক্যামেরাতে যা স্পষ্ট ধরা পরে৷ তিন মাস পর মাঠে ফেরেন আর্জেন্তাইন তারকা ফুটবলার৷ দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলের নিয়ামক সংস্থার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করে গত জুলাইয়ে নির্বাসিত হয়েছিলেন তিনি। কোপা আমেরিকায় চিলির বিরুদ্ধে তৃতীয় স্থানের ম্যাচের পর এই অভিযোগ করেছিলেন মেসি। তার পরই তাঁকে নির্বাসিত হতে হয়।

কিন্তু নির্বাসন কাটিয়ে স্বমহিমায় ফিরলেন ফুটবলের রাজপুত্র। ১৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ফিরতি বলে গোল করে গেলে দলকে জেতান মেসি। ব্রাজিলীয় গোলকিপার অ্যালিসন তাঁর পেনাল্টি বাঁচালেও ফিরতি বল গোলে পাঠিয়ে দলকে ১-০ এগিয়ে দেন মেসি। এর আগেই অবশ্য পেনাল্টি মিস করেন ব্রাজিলের গ্যাব্রিয়েল জেসাস। মেসির একমাত্র গোলেই শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জিতে নেয় আর্জেন্তিনা৷ সেই সঙ্গে গত জুলাইয়ে কোপা আমেরিকা সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হারের মধুর প্রতিশোধও নিল স্কালোনির ছেলেরা।

ম্যাচ জিতিয়ে মেসি বলেন, ‘এই জয় খুব গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্রাজিলকে হারানো সব সময়ই দারুণ অনুভূতি। দুই দেশের ফুটবল নিয়ে শত্রুতা দীর্ঘ যুগ ধরে চলে আসছে। আগামী বছরের জন্য এই জয়টা আমাদের উন্নতিতে কাজে লাগবে।’ এই গোলের ফলে ব্রাজিলের বিরুদ্ধে মেসির সাত বছরের গোলের খরা কাটল৷ ম্যাচের শুরুতেই গোল নষ্ট ও গোল হজম করে আর পেরে উঠতে পারেনি ব্রাজিল। নেইমারের অবর্তমানে তা আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড লাইনের দুর্বলতা। চোটের জন্য অনেক দিন মাঠের বাইরে রয়েছেন নেইমার।

আর্জেন্তিনার কাছে হারের ফলে টানা পাঁচ ম্যাচে হারল ব্রাজিল। আর আর্জেন্তিনা ছ’ ম্যাচের মধ্যে চারটিতে জয় পেয়েছে। মেসিদের পরের ম্যাচ উরুগুয়ের বিরুদ্ধে৷ ব্রাজিলের পরবর্তী ম্যাচ মঙ্গলবার আবু ধাবিতে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে। তারপর শুরু হবে ২০২০ ফিফা বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্ণয়পর্ব।