বার্সেলোনা: আলাভেসের বিরুদ্ধে দ্বিতীয়ার্ধে ২৫ গজ দূর থেকে করা দুরন্ত গোলে চলতি ক্যালেন্ডার ইয়ারে গোলের হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন লিওনেল মেসি। এই নিয়ে টানা ছ’টি ক্যালেন্ডার ইয়ারে ৫০ বা তার বেশি গোলের (ক্লাব ও দেশের হয়ে) নজির গড়লেন বার্সেলোনা জনতার নয়নের মণি। মেসির পাশাপাশি আলাভেসের বিরুদ্ধে স্কোরশিটে নাম তুললেন আপফ্রন্টের বাকি তিন ফুটবলারই (গ্রিজম্যান, ভিদাল, সুয়ারেজ)। সেই সুবাদে আলাভেসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে বছর শেষ করল বার্সেলোনা।

টানা দু’ম্যাচ ড্র’য়ের পর ফের জয়ের সরণীতে ফিরে লিগ টেবিলের শীর্ষে থেকেই বছর শেষ নিশ্চিত করল কাতালান ক্লাবটি। অ্যাওয়ে ম্যাচে এদিন মাত্র ১৪ মিনিট গোলদুর্গ অক্ষত ছিল আলাভেসের। ম্যাচের প্রথম কোয়ার্টারের অন্তিম মুহূর্তে সুয়ারেজের মাইনাস থেকে বক্সের মধ্যে চকিতে গোল লক্ষ্য করে শট নেন আতোয়াঁ গ্রিজম্যান। বিপক্ষ গোলরক্ষক কিছু বুঝে ওঠার আগেই তা জড়িয়ে যায় জালে। বার্সার হয়ে সবধরনের প্রতিযোগীতা মিলিয়ে এই নিয়ে সাত ম্যাচে চতুর্থ গোলটি তুলে নিলেন ফরাসি স্ট্রাইকার।

এরপর দ্বিতীয় গোলের লক্ষ্যে বারংবারই আলাভেস রক্ষণে হানা দিতে থাকেন মেসি-সুয়ারেজরা। গোলের খুব কাছে পৌঁছলেও কিছুতেই আসছিল না দ্বিতীয় গোল। অবশেষে প্রথমার্ধের নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে দ্বিতীয়বারের জন্য আলাভেসের দুর্গ ভাঙে বার্সা। বক্সের মধ্যে আর্তুরো ভিদালের কোনাকুনি গোলার মতো শট ফার্নান্দো পাচেকোর নাগাল এড়িয়ে জড়িয়ে যায় তিনকাঠিতে।

দু’গোলে পিছিয়ে থেকে অ্যাওয়ে টিম দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গোল তুলে নিয়ে ম্যাচে ফিরে আসে। বামপ্রান্তিক লম্বা ক্রস থেকে মার্কারকে এড়িয়ে অনবদ্য হেডারে গোল করে যান পেরি পনস। কিন্তু আক্রমণের ধারা বজায় রেখে মিনিট ১৩ বাদে আলাভেসের সমতা ফেরানোর আশায় জল ঢেলে দেন লিও। ২৫ গজ দূর থেকে পরিচিত মেজাজে মেসির বাঁ-পায়ের নিখুঁত শট শরীর শূন্যে ছুঁড়েও নাগাল পাননি ফার্নান্দো পাচেকো। একইসঙ্গে চলতি বছরে গোলের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ হয় আর্জেন্তাইনের।

৭৫ মিনিটে বার্সেলোনার ডানপ্রান্তিক একটি আক্রমণ বক্সের মধ্যে হাতে লাগান এক আলাভেস ডিফেন্ডার। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে বার্সেলোনাকে পেনাল্টি উপহার দেন রেফারি। স্পটকিক থেকে গোল করে বার্সেলোনার চার গোলের বৃত্ত সম্পূর্ণ করেন ঊরুগুয়ে স্ট্রাইকার সুয়ারেজ। এই জয়ের সঙ্গে ১৮ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকেই বছর শেষ নিশ্চিত করে আর্নেস্তো ভালভের্দের ছেলেরা।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও