বুয়েনস আইরস: কোপা আমেরিকায় তৃতীয় স্থান নির্ধারক ম্যাচে চিলির ডিফেন্ডারের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে লাল কার্ড দেখে এক ম্যাচ নির্বাসিত হয়েছিলেন৷ কিন্তু দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল নিয়ামক সংস্থা কনমেবল-এর বিরুদ্ধে সরাসরি দুর্নীতির অভিযোগ আনায় আরও কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হল লিওনেল মেসিকে৷ তিন মাস আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে নির্বাসিত হলেন ফুটবলের রাজপুত্র৷

কোপা আমেরিকায় শেষ চারের লড়াইয়ে ব্রাজিলের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় আর্জেন্তিনা। হারের পর কনমেবল-এর বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন মেসি। ‘‌সব কিছুই আগে থেকে ঠিক করা আছে। য়োজক দেশ ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন করানোর চেষ্টা করছে কনমেবল৷’ এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন আর্জেন্তাইন অধিনায়ক৷ এর জেরে তিন মাস দেশের জার্সিতে মাঠের বাইরে থাকতে হবে মেসিকে৷

আপত্তিকর মন্তব্যের জন্য তিন মাসের জন্য আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে মেসিকে নির্বাসিত করে লাতিন আমেরিকান ফুটবল সংস্থার (কনমেবল)৷ আপত্তিকর মন্তব্যের জন্য মেসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি বৈঠকে বসে। শুক্রবার এ ব্যাপারে চূড়ান্ত শাস্তি ঘোষণা করে কনমেবল৷ তিন মাসের নির্বাসনের পাশাপাশি ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে আর্জেন্তাইন অধিনায়কের।

লাতিন আমেরিকায় ফুটবলের সর্বোচ্চ নীতি নিয়ামক সংস্থাকে সরাসরি ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বলায় সম্মানহানি হয়েছে বলেই মনে করেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা। সুতরাং মেসির উপরে কড়া শাস্তির খাঁড়া নেমে আসতে পারে বলে আগেই অনুমান করা হয়েছিল৷ এই নির্বাসনের ফলে আগামী সেপ্টেম্বরে চিলি এবং মেক্সিকোর বিরুদ্ধে দেশের জার্সিতে মাঠে নামতে পারবেন না ৩২ বছরের এই আর্জেন্তাইন ফরোয়ার্ড৷ পাশাপাশি অক্টোবরে জার্মানির বিরুদ্ধেও খেলতে পারবেন না তিনি।