সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : চিড়িয়াখানায় শুরু হয়ে গেল ক্রিসমাসের প্রস্তুতি। ঈশা ও নিশাকে দিয়ে সেই পদক্ষেপ নিল আলিপুর চিড়িয়াখানা। কে এই ঈশা ও নিশা। এরা চলতি বছরে জন্ম নেওয়া তিন সিংহ শাবকের দুই শাবক। যাদের এবার দর্শকের সামনে নিয়ে এল চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

২৮ জুন রাত ৯টা ৬ মিনিটে, ১০.১২ মিনিটে ও ১০.২৪ মিনিটে জন্ম নিয়েছিল ওই সিংহশাবকগুলি। ২৭ বছর পরে আলিপুর চিড়িয়াখানায় সিংহের জন্ম হল। শেষবার ১৯৯২-এ সিংহ শাবক জন্মের সাক্ষী ছিল আলিপুর চিড়িয়াখানা। এখন আলিপুরে সিংহের সংখ্যা দাঁড়াল ৫। সিংহ দম্পতি শ্রুতি ও বিশ্বাসের সিংহ শাবকদের তিন জনের মধ্যে দুই সিংহী ঈশা ও নিশাকে এবার দেখা যাবে ক্রিসমাসের ছুটিতে।

গত বছরের জুলাই মাসে বিশাখাপত্তনমের ইন্দিরা গান্ধী জ্যুলজিক্যাল পার্ক থেকে কলকাতায় চারটি ভারতীয় বুনো কুকুর বা উসুরি ঢোল নিয়ে আসা হয়েছিল। তাদেরও দর্শকের সামনে নিয়ে আসা হল রবিবার। পাশাপাশি নিশাচর প্রাণীদের জায়গাটিও সুন্দর ভাবে গুছিয়ে দর্শকদের সামনে আনা হল। এখানে প্যাঁচা, সজারু, প্যাঙ্গলিনসহ আরও বিভিন্ন ধরণের প্রাণীদের রাখার সুবন্দোবস্ত করেছে আলিপুর চিড়িয়াখানা। এদিন পশুশালার অধিকর্তা আশীষকুমার সামন্ত পশুশালা পরিষ্কার রাখার জন্য একটি নতুন যন্ত্রও নিয়ে আসেন।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু। তিনি বলেন , ‘আশা করি নতুন এইসব পশু চিড়িয়াখানার দর্শককে আরও টানবে। গতবারের থেকেও বেশি দর্শক হবে বলে আমরা আশা করছি।’ বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমরা বন্য কুকুর, সিংহ শাবক , নিশাচর প্রাণীদের ঘর আজ খুলে দিয়েছি। আশা করছি গতবারের ১লক্ষ ১৫ হাজার দর্শকের রেকর্ড ভেঙে যাবে।’

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।