অনেক মহিলাই অভিযোগ করে বলেন যে, সম্পর্কের শুরুতে সঙ্গী তার প্রতি যতটা খেয়াল রাখত এখন তা রাখে না। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনি ততটাই উদাসীন হয়ে গিয়েছেন। স্বামীর প্রতি এহেন অভিযোগ কার্যত সমস্ত স্ত্রীয়েরই। এর পিছনে নানান কারণই থাকতে পারে।

কেউ বলেন, আকর্ষণ হারিয়েছেন, আবার কারোর মতে, কাজের চাপ। কেন এমন হয়? সত্যিই কি একটা সময়ের পর ওতটা প্রেম ভালোবাসা থাকে না একে-ওপরের সঙ্গে। লাইফ স্টাইনের উপর কাজ করে এমন একটি ওয়েবসাইট এই বিষয়ের উপর একটি সমীক্ষা চালায়। কয়েকশ মানুষের উপর হয় এই সমীক্ষা।

পুরুষ এবং মহিলা সবাইকেই কিছু প্রশ্ন করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই সমীক্ষা চলে। সেখানেও পুরুষ কিংবা মহিলা তাঁদের ব্যক্তিগত মত জানাতে পারছিলেন। সবাই সবার মতো করে ব্যক্তিগত মত জানায়। আর এরপরেই তা বিচার করে একটা সময় পর কেন সঙ্গীর আগ্রহ হারিয়ে যায়, তার একটা সম্ভাব্য কারণ সম্পর্কে জানিয়েছে ওই সংস্থা। তাঁরা বেশ কয়েকটি পয়েন্ট করেছে এই বিষয়ে।

ওই ওয়েবসাইট জানাচ্ছে-

আবেগের প্রকাশ: পরিচয়ের শুরুতেই একে অপরের প্রতি খুব একটা আন্তরিক থাকা হয় না। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যখন সঙ্গীর প্রতি ভালোলাগা বাড়তে থাকে তখন মহিলারা তা প্রকাশ করা শুরু করে এবং তা খুব স্বাভাবিক। তবে এমন ক্ষেত্রে অনেক পুরুষ সঙ্গীই বুঝে উঠতে পারে না কীভাবে এর প্রতি সাড়া দিতে হয়। তাই তারা নিজেদেরকে অনেক সময় দূরে সরিয়ে রাখতে স্বচ্ছন্দবোধ করেন।

অনিরাপত্তাবোধ: অনেক মহিলা আছেন যারা সঙ্গীকে অহেতুক সন্দেহ করেন। সবসময় মোবাইল ‘চেক’ করে থাকেন। এতে সঙ্গী আপনার অনিরাপত্তাবোধ সম্পর্কে অবগত হয়। তার মহিলা বন্ধু, চলা ফেরার ধরন ইত্যাদি বিষয়ে সবসময় প্রশ্ন করলে ধীরে ধীরে সে আপনার প্রতি আকর্ষণ হারাতে পারে।

অসম্মান করে কথা বলা: সঙ্গীকে অসম্মান করে কথা বলবেন না। সে যদি বুঝতে পারেন যে তাকে অসম্মান করছেন তাহলে সে ধরে নেবে যে, আপনি সুখী নন। এতে করে ধীরে ধীরে তার অস্বস্তি বাড়বে এবং সে আপনার সঙ্গে দূরত্ব সৃষ্টি করবে।

শারীরিক আকর্ষণ: শারীরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নারী ও পুরুষ সম্পূর্ণ বিপরীত। নারীরা শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের পরে পুরুষের প্রতি মানসিকভাবে বেশি আকর্ষিত ও সংযুক্ত হয়। অন্যদিকে, পুরুষেরা সহজেই ও দ্রুত আকর্ষণ হারিয়ে ফেলে। তাই সম্পর্কের শুরুতেই সঙ্গীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে যুক্ত হওয়া একটা বড় ভুল। তাছাড়া, যে কোনো কারণে যৌন সম্পর্ক ত্যাগ করাও দুজনের মাঝে দূরুত্ব আনতে পারে।

ভালোবাসায় জোর করা: সম্পর্কের শুরুতে সব কিছুই সুন্দর থাকে, সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অনুভূতি আরও গাঢ় হতে থাকে ও গুরুত্ব বাড়তে থাকে। মহিলারা সম্পর্কের প্রতি মানসিকভাবে দুর্বল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সঙ্গীর ওপরেও জোর খাটাতে শুরু করে। একই অনুভূতি পুরুষের ক্ষেত্রে না হলে সে সঙ্গীর প্রতি বিরক্ত হয় ও দূরত্ব সৃষ্টি করতে পারে।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।