কলকাতা: লকডাউনে বন্ধ রয়েছে বেশিরভাগ দোকানপাঠ৷ হচ্ছে না বেশিরভাগ প্রশাসনিক কাজ৷ করোনা মোকাবিলায় নেমেছে প্রসাসন৷ এই পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীদের লাইসেন্স পুনর্নবীকরণের মেয়াদ বাড়াল সরকার৷ বৃহস্পতিবার নবান্নে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে শিল্প ও বাণিজ্য সভার প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেখানে তিনি ঘোষণা করেন,ব্যবসায়ীদের লাইসেন্স পুনর্নবীকরণের মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে। আর সেই মেয়াদ বাড়িয়ে করা হল ৩০ জুন পর্যন্ত৷

এছাড়া তিনি আরও বলেন, চা বাগানে ১৫ শতাংশ শ্রমিককে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হবে৷ রোটেশন ভিত্তিক শ্রমিকদের কাজ করানোর প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রীর৷ চা শ্রমিককে কথা বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন আরও কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন,যেমন লকডাউন না ভেঙে জরুরি ভিত্তিতে পণ্য সরবরাহের স্বার্থে আংশিক পণ্য পরিবহণের ব্যবস্থা করতে হবে৷ শিল্প সংস্থাগুলিকে এক একটি বাজারের দায়িত্ব নেওয়ার আবেদন৷ বাজারে যাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যায় সেই বিষয়টি নজর রাখার কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী কাপড়ের মাস্ক তৈরি মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্প যাতে তৈরি করে সেই প্রস্তাব দেন৷ পাশাপাশি যারা অর্ধেক দামে রেশন কেনেন তাদের জন্য ৩ মাস বিনামূল্যে রেশনের ভাবনার কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। দেশেরে পাশাপাশি বাংলায়ও বেড়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা৷ একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা ১২৷ অর্থাৎ রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩ জনে৷ মৃতের সংখ্যা ৫ জন৷ গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ জনকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে৷ তবে এই মুহূর্তে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৮০ জন৷

এদিন নবান্নে তিনি আরও জানান, রাজ্যে সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার রয়েছে ৫৬২টি৷ বর্তমানে সরকারি কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৪৭১৭ জন।তবে ইতিমধ্যেই সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৫১৮৮ জন৷ রাজ্যে মোট করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৮৮৬টি৷ এছাড়া ১১ লক্ষ পিপিই-র বরাত দিয়েছে রাজ্য সরকার। এবং ৭ লক্ষ ২০ হাজার এন- ৯৫ মাস্কের বরাত দেওয়া হয়েছে। এখনই স্কুল খোলার সম্ভবনা নেই বলে জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷৷ তবে মে মাসের শুরুতে স্কুলগুলিতে পৌঁছে যাবে মিড ডে মিল৷ লকডাউন মানে দমবন্ধ করা পরিস্থিতি৷ কিন্তু এই পরিস্থিতি মেনে নিতে হবে৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

Tree-bute: রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও