কলকাতা:  মধ্যবিত্তের জন্য খুশির খবর আনল এলআইসি বা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কর্পোরেশন। বিমার সঙ্গে মানিব্যাক পরিকল্পনার মেলবন্ধন ঘটিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে একটি পলিসি আনল এলআইসি। এই প্ল্যানের সময়সীমা হল ২০ বছর। অন্যদিকে এলআইসি-র আগের প্ল্যানগুলির ম্যাচুরিটির সময় সীমা ছিল ২৫ অথবা ৩০ বছর।

এই পলিসিতে খুব অল্প টাকায় যে কেউ বিনিয়োগ করতে পারেন। এলআইসি-র এই মানিব্যাক প্ল্যানে ২০ বছরে কোনও ব্যক্তিকে কমপক্ষে ১ লক্ষ টাকা দিতেই হবে। এই পলিসির মেয়াদ ২০ বছর হলেও প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে কেবল মাত্র প্রথম ১৫ বছর। সেক্ষেত্রে হিসেব করলে প্রতি মাসে আপনাকে দিতে হবে ৫৫৬ টাকা। যা এলআইসির অন্যান্য প্ল্যানের তুলনায় বেশ সাশ্রয়ী।

কিন্তু আপনি য শুধুমাত্র ১ লক্ষ টাকা রাখতে পারবেন এমন নয়। যত খুশি টাকা রাখা যেতে পারে। এক্ষেত্রে কোনও ঊর্ধসীমা নেই। যিনি এই পলিসি ভুক্ত হচ্ছেন তাঁর বয়স অবশ্যই হতে হবে ১৩ থেকে ৫০-এর মধ্যে। যেহেতু মানিব্যাক ও বিমার একত্রিত হয়ে এই প্ল্যান, তাই প্রত্যেক ৫ বছর অন্তর টাকা পাবেন বিনিয়োগকারী। প্রথম ৫ বছর পরে জমানো টাকার ২০% ফেরত পাবেন। ১০ বছর পরে যে টাকা জমা হবে তার ২০% টাকা ফেরত পাবে এবং ১৫ বছর পর যে টাকা জমবে সেখান থেকে ফেরত পাবে ২০% টাকা।

আরও পড়ুন- দিনে মাত্র ৭৭ টাকাতে নতুন বাইক, জানুন সমস্ত জরুরি তথ্যগুলি

সর্বশেষে অর্থাৎ ম্যাচিওরিটি হয়ে গেলে বিনিয়োগকারী পাবেন মূল টাকা ও তার ৪০% অতিরিক্ত টাকা। সব মিলিয়ে বেশ মোটা অঙ্কের টাকা পাবেন বিনিয়োগকারী। অন্যান্য সুবিধার ক্ষেত্রেও রয়েছে সম্পূর্ণ লাভ। যদি দুর্ভাগ্যবশত প্ল্যানের সময়সীমা অতিক্রম করার আগেই বিনিয়োগকারী মারা যান, সেক্ষেত্রে তার বিনিয়োগের কিছু অংশ স বোনাস অথবা তার বার্ষিক জমার ১০ গুন টাকা পাবেন নমিনি হিসেবে পছন্দ করা ব্যক্তি।