শ্রীনগর: শনিবার নিরাপত্তা রক্ষীদের হাতে গ্রেফতার লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষস্থানীয় জঙ্গি জাহুর ওয়ানি। বুদগাম জেলার আরিজাল খানসাহিব এলাকায় একটি আস্তানা থেকে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে।

জাহুর ওয়ানির থেকে অস্ত্র ও গুলিও উদ্ধার করা হয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ তার বিরুদ্ধে একটি মামলাও দায়ের করেছে।

তাকে গ্রেফতারের পর আরও ৪ জনকে গ্রেফতার করে নিরাপত্তা বাহিনী। তাঁরা প্রত্যেকেই খানসাহিব এলাকার বাসিন্দা। অভিযোগ, এরা প্রত্যেকেই লস্কর-ই-তৈবার জঙ্গিদেরকে সহায়তা করত ও তাঁদেরকে আশ্রয় দিত।

জম্মু -কাশ্মীর পুলিশ, ভারতীয় সেনার ৫৩ রাস্ট্রীয় রাইফেল ইউনিট ও ১৫৩ সিআরপিএফ ব্যাটেলাইনের যৌথ উদ্যোগে শনিবার বাডগামে এই সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান চালানো হয়েছিল। তাতেই ধরা পড়ে লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষস্থানীয় জঙ্গি।

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই সেনার সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে খতম হয় হিজবুল কমান্ডার রিয়াজ নাইকু। মাত্র দিন দশেক আগে সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াইইয়ে নিকেশ হয় ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ রিয়াজ নাইকু। তাঁর মাথার দাম ছিল ১২ লক্ষ টাকা।

নাইকুকে খতম করার সময়েও জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ, সেনাবাহিনী ও সিআরপিএফ যৌথভাবে সেই অভিযান চালিয়েছিল। কাশ্মীরে একাধিক অপহরণের ঘটনায় যুক্ত ছিল এই রিয়াজ নাইকু।

নাইকুকে খতম করার পর মাত্র ১০ দিনের মধ্যে লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষস্থানীয় জঙ্গি জাহুর ওয়ানিকে গ্রেফতার করায় পরপর বড় সাফল্য এল ভারতের হাতে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প