ওয়াশিংটন: তরুণ সমকামীদের মধ্যে নেশার প্রবণতা বাড়ছে। ওরেগন স্টেট ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় উঠে এসেছে অত্যন্ত বেশী পরিমাণে অ্যালকোহল,নিকোটিন,মারিজুয়ানার মতো মাদকদ্রব্য সেবন এই তরুণদের জীবনে ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনছে।

সহ অধ্যাপক সারাহ ডেরমদি জানান,’নব্য যুবাদের বিভিন্ন স্তরে এর বিভাজন রয়েছে, যেমন সংখ্যালঘু সমকামীদের মধ্যে এর প্রবণতা সবচেয়ে বেশী। আমাদের দেখতে হবে কেন এই প্রবনতা বাড়ছে দিনে দিনে। কি কি বিষয় এর পেছনে রয়েছে?’

পুরুষ-নারীর সাধারন যৌন জীবনের পরিবর্তে যারা সম লিঙ্গ যৌন জীবনের প্রতি আকৃষ্ট তাদের এক ছাতার তলায় আনার জন্য এর পোশাকি নাম লিঙ্গ-সংখ্যালঘু। এই বিষয়ে গবেষণার জন্য গবেষকেরা প্রায় ১৫,০০০ সমকামী তরুণদের বেছে নিয়েছিলেন।

ডেরমদি আরও জানিয়েছেন,’আমাদের মূল লক্ষ্য হল যে দুই বা তিন ধরণের ড্রাগ এই তরুণদের মধ্যে ব্যবহারের প্রবণতা সবচেয়ে বেশী। সেগুলি থেকে ঠিক কি কি বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন এই তরুণেরা সেটাই গবেষণা করে জানার চেষ্টা করছেন গবেষকেরা। গবেষণার এই বিশাল অংশটি এতদিন পর্যন্ত অজানাই থেকে গেছে’।

এই গবেষণার পরবর্তী ধাপে দেখা হবে কেন লিঙ্গ-সংখ্যালঘুদের মধ্যে এই প্রবণতা বাড়ছে? এবং তাদেরই সমবয়সী অন্যান্য তরুণদের তুলনায় তাদের এই প্রবণতা কেন বেশী? ড্রাগ ও অ্যালকোহল সংক্রান্ত একটি জার্নালে এই রিপোর্ট প্রকাশিত হয়। গবেষকদের আশঙ্কা সম্ভবত সমকামী হওয়ার কারনে বৈষম্য,হিংসা, একটি দোষী মনোভাব তাদের মনে বহুদিন ধরে জমে থাকার কারনে অবসাদগ্রস্ত হয়েও এই নেশাগ্রস্ত হওয়ার প্রবণতা এই হারে বাড়ছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও