আপনি কি বছরের পর বছর ধরে কন্ট্যাক্ট লেন্স পরছেন? কিংবা চশমাকে পুরোপুরি আলবিদা জানিয়েছেন? কিন্তু কন্ট্যাক্ট লেন্স পরে মেকআপ করা, বিশেষত ঠিকঠাকমতো চোখের মেকআপ করতে গেল মাঝেমধ্যে অনেকেরই বিরক্তি লাগে। তবে মেকআপের কিছু খুঁটিনাটি নিয়ম মেনে চললে লেন্সও থাকবে সুরক্ষিত আর আপনিও মেকআপ করতে পারবেন প্রাণভরে।

১) হাত ও মেকআপের সামগ্রী পরিষ্কার রাখুন- চোখের মতো সংবেদনশীল জায়গায় যখনই আপনি হাত ছোঁওয়াবেন, আপনার হাত যেন পরিষ্কার থাকে। মেকআপ ব্রাশ ও মেকআপ কিটও যেন আগের বার ব্যবহারের পর পরিষ্কার থাকে। কারওর ব্যবহার করা জিনিস ব্যবহার করবেন না এক্ষেত্রে। আর পরিচ্ছন্ন হাই কোয়ালিটির মেকআপ ব্যবহারের ফলে আপনার চোখ আগের থেকে স্বাভাবিকভাবেই আরও উজ্জ্বল দেখাবে।
২) লেন্স আগে লাগান- কন্ট্যাক্ট লেন্স পরার সবচেয়ে বড় সুবিধে মেকআপের সময়ই আপনি এটা লাগাতে পারবেন।  তবে পরে নিন একেবারে শুরুতেই। এমনকী মুখে কোনও মেকআপ লাগানোর আগেই। এতে আপনি দেখতে পাবেন ভালো করে আর চোখে সংক্রমণেরও সম্ভাবনা থাকবে না।

৩) ওয়াটারপ্রুফ মেকআপ-অয়েল বেসড মাসকারা কখনও কন্ট্যাক্ট লেন্সের সঙ্গে লাগে না। তাই মেকআপ কিটে সেই ধরনের প্রোডাক্টকেই প্রাধান্য যা অবশ্যই ওয়াটারপ্রুফ হতে হব। যেসব মাসকরারা তৈরিতে ফাইবার ব্যবহার হয় সেগুলো একদমই লাগাবেন না। চোখ আর লেন্স দুটোর ক্ষতিই তাহলে অবশ্যম্ভাবী।
৪) ক্রিম আইশ্যাডো-কন্ট্যাক্ট লেন্স পরছেন বলে আইশ্যাডো পরা ছেড়ে দিতে হবে, এতটাও নয়। ক্রিমবেসড পাউডার শেডের আপনার পছন্দের আইশ্যাডোটি লাগালে অসুবিধে নেই। তবে কীভাবে ক্রিমি আইশ্যাডো স্মার্জ করে লাগাবেন, তা আপনাকে শুরুতেই ভালো করে রপ্ত করে নিতে হবে।
৫)আইলাইনারে সাবধান- আইলাইনার পরার অভ্যেস থাকলে সেক্ষেত্রে একটু ছাড়তে হবে। আপার লীডে লাইনার লাগালেও লোয়ার বা ইনার লীডে কখনওই আই লাইনার লাগাবেন না যদি আপনি নিয়মিত লেন্স পরেন। সংক্রমণ হতে পারে।

৬) হাইপোঅ্যালার্জেনিক কসমেট্কিস- চোখের মেকআপ কেনার সময় এই ধরনের মেকআপ বাছুন। একটু দাম বেশি হলেও সুরক্ষিত থাকবে আপনার চোখ। আর আপনার ত্বক যদি সেনসিটিভ হয়, তাহলে এই মেকআপের বাইরে যাবেন না।
৭)প্রেসড পাউডার- অনেকেই মেকআপ করার পর অতিরিক্ত তেল শোষণের জ্যন পাউডারের গুঁড়ো লাগিয়ে নেন। তবে গুঁড়ো পাউডারের বদলে এক্ষেত্রে ব্যবহার করুন প্রেসড পাউডার। চোখে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে না।
৮) ধোওয়ার সময়- চোখ-মুখের মেকআপ তোলার সময় খুব আস্তে তুলুন। আর সবার আগে আরও একবার হাত ভালো করে ধুয়ে নিন। মেকআপ রিম্যুভারে যেন কোনও সুগন্ধী মেশানো না থাকে, তাহলে তা চোখের পক্ষে ক্ষতিকর। তবে মেকআপ তোলার আগে সবার আগে লেন্স খুলে পরিষ্কার করে রাখুন।

৯) যদি সম্ভব হয় তাহলে ডিজপোজেবল লেন্স ব্যবহার করুন।
১০) বিকল্প রাখুন- নিয়মিত লেন্স পরার অভ্যেস থাকলেও চশমা রাখুন হাতের কাছে। কেননা মেকআপ করার সময় যদি চোখে ঢুকে যায়, তাহলে লেন্স খুলে তক্ষুণি চশমা পরুন। আর যতক্ষণ না চুলকানি বা চোখের অস্বস্তির ভাব কাটছে, ততক্ষণ চোখে লেন্স পরা বা মেকআপ না করাই উচিত।