বিশেষ প্রতিবেদন: বামপন্থী রাজনৈতিক দলগুলি ৭ আগস্ট থেকে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে আর্টিকল ৩৭০ এবং ৩৫A নিয়ে রাস্তায় নামবে। প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কারাত সোমবার জানিয়েছেন, মোদী সরকার ঠান্ডা মাথায় দেশের গণতন্ত্রকে খুন করেছে। দেশের ধর্ম নিরপেক্ষতার পক্ষে এই সরকার বিপদজ্জনক।

৩৭০ ধারা বাতিল ও জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিয়ে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে পরিণত করার পর তীব্র প্রতিবাদে পথে নেমেছে সিপিএম সহ অন্যান্য বামপন্থীদল গুলো। অন্যদিকে, দিল্লিতে প্রতিবাদ মিছিলে শামিল সমস্ত বামপন্থী দলগুলো।

আরও পড়ুন : মোদী সরকারের জয়, রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল কাশ্মীর সংক্রান্ত বিল

সোমবার দিল্লির পার্লামেন্ট ষ্ট্রিট থেকে শুরু হওয়া মিছিলে হেঁটেছেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, নেত্রী বৃন্দা কারাট, সিপিআই(এমএল) লিবারেশনের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য, সিপিএম নেতা এমএ বেবি, প্রকাশ কারাট, সিপিআই সাধারণ সম্পাদক ডি রাজা সহ অন্যান্য নেতারা।

কাশ্মীরে ইচ্ছা করেই ভাবে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি করে দেশজুড়ে অশান্তি ছড়ানোর যে চক্রান্ত মোদী সরকার করছে তার প্রতিবাদে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছে সমাজের সর্ব স্তরের মানুষ। কলকাতায় অবশ্য সেই বিক্ষোভের মূল স্লোগান ছিল, কাশ্মীরি সিপিএম নেতা ইউসুফ তারিগামীর মুক্তি চাই। বামেদের ডাকা মিছিলে শামিল ছিল ছাত্র যুবরাও।

আরও পড়ুন : আর্টিকেল 35A এবং 370: মোদীকে বাংলার বুদ্ধিজীবীদের চিঠি

এদিন বিকাল ৪টায় ধর্মতলায় লেনিন মূর্তি থেকে মহাজাতি সদন পর্যন্ত মিছিলে শামিল হন শহরের জনতা। মিছিলে ছিলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু, সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র, সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম ও অনন্যরা।