কলকাতা: যৌথ আন্দোলনের পথে রাজ্যের বাম ও কংগ্রেস নেতৃত্ব। রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল ও কেন্দ্রের শাসক বিজেপির বিরুদ্ধে আগামী ২৯ জুন থেকেই আন্দোলনে নামছে বাম-কংগ্রেস। ওই দিন পেট্রোল-ডিজেলের দামবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাবে বাম ও কংগ্রেস। পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে লাগাম টানতে কেন্দ্র ও রাজ্যের কাছে দাবি জানাবেন বাম ও কংগ্রেস নেতারা।

লক্ষ্য ২০২১। তৃণমূলকে পরাস্ত করতে আর বিজেপিকে রুখতে একজোট হয়ে লড়াইয়ের বার্তা বাম ও কংগ্রেস নেতৃত্বের। বুধবার রাজ্যে যৌথ আন্দোলনের রূপরেখা ঠিক করতে আলোচনায় ছিলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু এবং প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র।

দু’দলের আলোচনায় সাম্প্রতিক সময়ের একাধিক ইস্যু উঠে আসে। কংগ্রেসের তরফে স্টিয়ারিং কমিটি গঠনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বামেদের।

কংগ্রেসের সঙ্গে যৌথ আন্দোলন প্রসঙ্গে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু জানান, তৃণমূল ও বিজেপিকে সাধারণ মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিতে একজোট হয়ে লড়াই চালানো হবে।

কংগ্রেসের তরফে এব্যাপারে বেশ কিছু প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সেগুলো নিয়ে আলোচনা হবে। রাজ্যের তৃণমূল ও বিজেপি বিরোধী সব দলকে এক ছাতার তলায় এনে লড়াই চলবে।

আগামী ২৯ জুন পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি নিয়েছে বাম-কংগ্রেস। ওই দিন কলকাতার রেড রোডে প্রতিবাদ কর্মসূচিতে থাকবেন বাম ও কংগ্রেসের নেতারা।

জেলাগুলিতে ২৯ জুন সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে অবস্থান বিক্ষোভ করবে বাম ও কংগ্রেস নেতৃত্ব।

তবে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে সব কর্মসূচিই হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই চলবে প্রতিবাদ কর্মসূচি।

আন্দোলনে সামিল হতে যাঁরা আসবেন তাঁদেরও মাস্ক পরে আসতে দলের তরফে নির্দেশ দেওয়া হবে। রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে যাতে কোনওভাবেই স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করা না হয় সেব্যাপারে কর্মীদের সজাগ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে দুই দলই।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।