আগরতলা: ত্রিপুরার জালিফা গ্রামে আগ্নেয়গিরির জ্বলন্ত লাভার মতো এক ধরনের তরল পদার্থ নির্গত হওয়ার ঘটনা মানুষের মনে ভীতিসঞ্চার করেছে।

বিষয়টি উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে কারণ উত্তর-পূর্ব ভারতে অবস্থিত ত্রিপুরা রাজ্যটি একটি ভূমিকম্পপপ্রবণ এলাকা। সারা বছরে রাজ্যে মোট তিনবার এ ধরনের ঘটনা ঘটল। এপ্রিলের মাঝামাঝি বৈষ্ণবপুর ও ঘাগরাবস্তি নামক দুটি জায়গায় লাভার মতো তরল পদার্থ নির্গত হওয়ার সাথে সাথে আগুন ও গ্যাসও বেরিয়েছিল।

সম্প্রতি জালিফা গ্রামের মানুষজন রাস্তার পাশে একটি ইলেকট্রিক পোলের নীচের অংশ থেকে লাভা বের হতে দেখে ভয় পায়। সঙ্গে সঙ্গে তারা লোকাল পুলিশ ও অগ্নিনির্বাপক দলকে খবর দেয়। দমকলকর্মী এলাকায় পৌঁছে জল দিলেও লাভা নির্গমন প্রতিরোধ করা যায়নি।

বিজ্ঞানী এবং প্রযুক্তিবিদ ও পরিবেশবিদরা ইতিমধ্যেই এলাকা পরিদর্শন করে এসেছেন। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তারা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে ওই এলাকার লাইনে ত্রুটি এবং মাটির নীচের টেকটোনিক প্লেট সরে যাওয়ার কারণে অত্যধিক উত্তাপে এমন ঘটনা ঘটেছে।

ত্রিপুরা স্পেস অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারের বৈজ্ঞানিক অভিষেক চৌধুরী অগ্নুৎপাতের সম্ভাবনা সেরকম নেই বলেই আশ্বাস দিয়েছেন। তবে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও পরিবেশ মন্ত্রী সুদীপ রয় বর্মন অগ্নুৎপাতের সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না যেহেতু রাজ্যে বড় ভূমিকম্পের ঘটনা আগেও ঘটেছে। তবে সরকার ঘটনাটি নিয়ে প্রয়োজনীয় তদন্ত করবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।