মুম্বই: খুব ছোট বয়সে পরিবারের ভার কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন তিনি। ভাই-বোনদের কখনও বুঝতে দেননি বাবার অভাব। এই সংসারের কারনেই কখনও বাঁধতে পারেননি নিজের সংসার। এমনটাই শোনা যায়। কিন্তু সত্যি কি তাই! বলিপাড়ায় কান পাতলে শোনা যায় অন্য ফিসসিসানিও, ধুনগারপুরের মহারাজা রাজ সিং ও সুরের রানি লতা মঙ্গেশকরের প্রেমকাহিনি।

লতার ভাই ঋদ্ধিনাথ মঙ্গেশকরের বন্ধু ছিলেন মহারাজা রাজ সিং। তাঁদের আলাপ হয় ক্রিকেট মাঠে। দু’জনেই খুব ভাল ক্রিকেট খেলতেন। ধীরে ধীরে বন্ধুত্ব নিবিড় হতে থাকে। খেলার মাঠ থেকে তা পৌঁছায় বাড়ির চৌকাঠে। একদিন ঋদ্ধিনাথ রাজ সিংকে চায়ের জন্য বাড়িয়ে নিমন্ত্রণ করেন। সেদিন প্রথম লতার সঙ্গে দেখা হয় রাজ সিংয়ের। লোকে বলে, প্রথম দেখায় একে-অপরকে মনে দিয়ে ফেলেছিলেন তাঁরা। কিন্তু এই ভালবাসা কোনওদিন আশ্রয় পায়নি।

আরও পড়ুন: বঙ্গে চিরতরে বন্ধ হতে চলেছে সিনেমাহল!

শোনা যায়, রাজ সিংহ তাঁর বাবা-মায়ের কাছে প্রতিজ্ঞা বদ্ধ ছিলেন, যে তিনি রাজবংশের মেয়ে ছাড়া সাধারন মেয়েকে কখনই বিয়ে করবেন না। যে প্রতিজ্ঞা রেখেছিলেন তিনি। তবে লতাকে ছাড়া তিনি কাউকে মনে জায়গা দেননি। সুরের রানিকে ভালবেসে কাটিয়ে দিয়েছেন গোটা জীবন। আদর করে লতাকে ডাকতেন মিঠু নামে। পকেটে সবসময় রাখতে ছোট একটি টেপ রেকর্ডার। যাতে থাকত শুধু লতার গাও গান!