নিয়ন: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ রাউন্ডের গ্রুপ ম্যাচগুলির বেশিরভাগই অঘটন হিসাবেই চিহ্নিত হয়ে রইল৷ অবশ্য তার জন্য নক-আউটের হিসাবে খুব একটা গোলমাল হয়নি৷ প্রত্যাশিত দলগুলিই গ্রুপের বাধা টপকে প্রি-কোয়ার্টারে প্রবেশ করেছে৷

আরও পড়ুন: ঘরের মাঠে লজ্জার হার রিয়ালের

শেষ রাউন্ডের প্রথম দিনে বড় দলগুলিকে হতাশ হতে হয়নি৷ তবে দ্বিতীয় দিনে একাধিক ম্যাচে চমক দেখিয়েছে আন্ডারগডরা৷ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে তাদের ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে সব থেকে বড় ব্যবধানে হারের স্বাদ চাখিয়েছে সিএসকেএ মস্কো৷ রাশিয়ান দলটির ৩-০ গোলে জয় দিয়ে শুরু গ্রুপের শেষ দিনের অঘটন৷ পরে একইভাবে অঘটনের শিকার হতে হয় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ও জুভেন্তাসকে৷ যদিও রিয়াল, ম্যান ইউ ও জুভেন্তাস, তিনটি দলই নিরাপদে প্রি-কোয়ার্টারে জায়গা পাকা করেছে৷

আরও পড়ুন: ত্রিমুখী আক্রমণে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউটে পিএসজি

স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে ফিওদোর শালোভ, জর্জি শেনিকোভ ও সিগার্ডসনের গোলে রিয়ালকে পরাস্ত করে মস্কো৷ পরে নিজেদের ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়া ২-১ গোলে হারিয়ে দেল রেড ডেভিলদের৷ এক্ষেত্রে ম্যান ইউ নিজেরাই নিজেদের পরাজয়ের পথ প্রস্তুত করে বললে ভুল বলা হবে না৷ কেননা, ভ্যালেন্সিয়ার দু’টি গোলের মধ্যে একটি ম্যাঞ্চেস্টার তারকা ফিল জোনসের আত্মঘাতী৷

১৭ মিনিটে কার্লোস সোলের গোলে ১-০ এগিয়ে যায় ভ্যালেন্সিয়া৷ ৪৭ মিনিটে জোনসের আত্মঘাতী গোলে স্প্যানিশ দলটি ব্যবধান বাড়িয়ে ২-০ করে৷ ৮৭ মিনিটে রাশফোর্ডের গোলে ম্যাঞ্চেস্টার ব্যবধান কমিয়ে ২-১ করে৷

আরও পড়ুন: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউটে নাটকীয় প্রবেশ টটেনহ্যামের

‘এইচ’ গ্রুপের অপর ম্যাচে বার্নে সুইস দল ইয়ং বয়েজের কাছে ম্যাঞ্চেস্টারের মতোই ২-১ গোলে হেরে বসে জুভেন্তাস৷ ম্যাচের ৩০ মিনিটে পেনাল্টি থেকে সুইস দলটিকে ১-০ এগিয়ে দেন গুইলাউম হোয়ারাউ৷ ৬৮ মিনিটে হোয়ারাউই ইয়ং বয়েজের ব্যবধান বাড়িয়ে ২-০ করেন৷ ৮০ মিনিটে দিবালার গোলে স্কোরলাইন ২-১ করে জুভেন্তাস৷ ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে দিবালা দ্বিতীয়বার ইয়ং বয়েজের জালে বল জাড়ালেও রোনাল্ডো অফসাইডে থাকায় বাতিল হয় গোলটি৷

ক্লাব ফুটবলের তিন দৈত্য হারের মুখ দেখলেও ০-১ গোলে পিছিয়ে থাকা অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ২-১ গোলে জয় তুলে নেয় প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটি৷ ১৬ মিনিটে ক্রামারিচের পেনাল্টি গোলে হফেনহেইম এগিয়ে যায়৷ প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে (৪৫+১) গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান লেরয়৷ ৬১ মিনিটে তাঁর ম্যান সিটির জয়সূচক গোলটিও করেন তিনি৷ অন্যদিয়ে আয়াক্সের বিরুদ্ধে বায়ার্ন মিউনিখের ম্যাচ ৩-৩ গোলের ড্র’য়ে নিস্পত্তি হয়েছে৷

আরও পড়ুন: ‘রোনাল্ডো-জিদানের চিরকালীন ঠিকানা রিয়াল মাদ্রিদ’স্কোরলাইন:
রিয়াল মাদ্রিদ-০, সিএসকেএ মস্কো-৩
ভ্যালেন্সিয়া-২, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড-১
ইয়ং বয়েজ-২, জুভেন্তাস-১
ম্যাঞ্চেস্টার সিটি-২, হফেনহেইম-১
আয়াক্স-৩, বায়ার্ন মিউনিখ-৩

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।