দিঘা: মৎস্যজীবিদের জালে ধরা পড়ল একটি বিশাল আকৃতির চিল শঙ্কর মাছ। এর আগে এত বড় মাছ কখনও জালে উঠেছে কি না তা মনে করতে পারছেন না বলে মনে করতে পারছেন না মৎস্যজীদে অনেকে। গভীর সমুদ্র থেকে মাছটি ডাঙায় তুলতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় মৎস্যজীবী ও দিঘা মোহনা বাজারের কর্মীদের। দিঘা মোহনায় বিশালকৃতির এই মাছ দেখতে ভড়ি জমিয়েছিলেন পর্যটকরাও।

সমুদ্র থেকে মাছটি তোলার পর নিলামে সেটি বিক্রি করা হয়েছে। মৎস্যজীবীরা জানিয়েছেন, চিল শঙ্কর মাছ সাধারণ বাজারে খাওয়ার জন্য বিক্রী হয়। তবে এত বড় মাছ বাজারে আসার আগাম খবর পেয়ে ব্যাপক উৎসাহ ছিল ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে অন্য মৎস্যজীবীদের মধ্যেও। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার কাঁথির শৌলায় আলআমিন-৩ নামের ট্রলারের মৎস্যজীবীদের জালে এই বিশালাকায় মাছটি ধরা পড়ে।

সোমবার মাছটিকে দিঘা মোহনায় বিক্রি করা হয়। এর আগে এতো বড় চিল শঙ্কর মাছ দিঘা মোহনার বাজারে ওঠেনি বলেই দাবি মৎস্যজীবীদের একাংশের। বিশাল এই মাছটি এদিন কিনে নিয়েছেন রবীন্দ্রনাথ শ্যামল নামে স্থানীয় এক মাছ ব্যবসায়ী। ভারতের বাজারের পাশাপাশি বিদেশের বাজারেও এই মাছের চাহিদা রয়েছে বলে মৎস্যজীবিরা জানিয়েছেন।

এদিন মাছটি দিঘা মোহনা বাজারে আসার আগাম খবর পেয়ে ব্যবসায়ীদের মধ্যেও তুমুল উৎসাহ লক্ষ্য করা গিয়েছে। একটি গাড়িতে করে মাছটিকে বাজারে নিয়ে আসার পরেই সেটির ছবি তুলতে রীতিমতো হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। বিশাল এই মাছ দেখতে ভিড় উপচে পড়ে পর্যটকদের। মাছের সঙ্গেই চলে দেদার সেলফি তোলা। মুহূর্তে সেই ছবি আপলোড সোশ্যাল মিডিয়ায়। একের পর এক লাইক আর কমেন্টের বন্যা। সব মিলিয়ে পর্যটকদের কাছে দিঘা ঘোরার বাড়তি পাওনা এই বিশালাকৃতির মাছ-দর্শন।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব