বেঙ্গালুরু: গত শুক্রবার মাঝরাতে ভারতের চাঁদ স্পর্শ করার স্বপ্ন কয়েক মিনিটের জন্য থেমে যায়। চাঁদের একেবারে কাছাকাছি যাওয়ার পরই আচমকা ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। সেদিন ইসরোর তরফে জানানো হয়েছিল যে চাঁদের মাটি থেকে ঠিক ২.১ কিলোমিটার দূরেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে।

কিন্তু পরে ইসরো জানিয়েছে যে ২.১ কিলোমিটার নয়, আসলে আরও কাছাকাছি যাওয়ার পরই বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল বিক্রম। সম্প্রত ইসরোর দেওয়া একটি রিপোর্ট বলছে, মাত্র ৩৩৫ মিটার দূরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ‘নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্ট বলছে ৪০০ মিটার দূরত্ব থেকে যখন বিক্রম চাঁদের দিকে এগোতে শুরু করে, তার কিছুক্ষণের মধ্যেই হারিয়ে যায় লিংক।

বর্তমানে ইসরোর দেওয়া রিপোর্ট বলছে, ‘চন্দ্রায়ন ২-এর অরবিটার বিক্রম ল্যান্ডারের অবস্থান খুঁজে পেয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।’ ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করার সবরকম চেষ্টা চলছে বলেও জানিয়েছে ইসরো।

শুক্রবার রাতে চাঁদে পৌঁছনোর কথা ছিল ল্যান্ডার বিক্রমের। কিন্তু কয়েক মিনিট আগেই সেই ল্যান্ডারের সঙ্গে ইসরোর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর থেকেই উৎকন্ঠায় কাটাচ্ছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা। পরে বিক্রমের ছবি দেখা গিয়েছে বলে জানান ইসরোর চেয়ারম্যান কে সিবান। তবে বিক্রম অক্ষত আছে কিনা জানা যায়নি।

শুক্রবার রাত ১.৫২ মিনিট ৫৪ সেকেন্ডে অবতরণের সময় নির্দিষ্ট ছিল৷ ঠিক তার আগেই সংকেত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় চন্দ্রযান ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে। চাঁদের দক্ষিণ মেরু অঞ্চলে কয়েক বিলিয়ন বছর সূর্যালোক ঢোকেনি৷ সেখানে জলের সঞ্চয় রয়েছে বলে মনে করা হয়। সেখানেই নামার কথা বিক্রমের।

ভারত এই অভিযানে সম্পূর্ণভাবে সফল না হলেও ইসরোর এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছে আমেরিকা থেকে জাপান।

চন্দ্রযান-১ এর ডিরেক্টর মাইলস্বামী আন্নদুরাই বলেন, ‘চাঁদের পৃষ্ঠেই বাধা পাচ্ছে, তাই ল্যান্ডার বিক্রমের সংকেতে বাধা আসছে।

তিনি মনে করেন, ‘ল্যান্ডার যেখানে অবতরণ করেছিল তা অবতরণের জমি হিসাবে যথেষ্ট উপযুক্ত নয়। তাছাড়া তাঁর মতে, এমন কিছু বাধাও থাকতে পারে, যা তার সঙ্গে “সংযোগ স্থাপন থেকে আটকাতে চেষ্টা করছিল। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো এর আগে শনিবার ভোরের দিকে চন্দ্র পৃষ্ঠে অবতরণের কয়েক মিনিট আগে চন্দ্রযান ২-এর বিক্রম ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলে।

তিনি বলেন, অরবিটার এবং ল্যান্ডারের মধ্যে সর্বদা দ্বি-মুখী যোগাযোগ থাকে তাই অন্য একটি উপায়ে যোগাযোগ করা সম্ভব। তবে তা ৫-১০ মিনিটের বেশি হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।