স্টাফ রিপোর্টার,মালদহ: মালদহ জেলার কালিয়াচক ৩ ব্লকের পার চকবাহাদুরপুরে শুরু হয়েছে গঙ্গা নদীর ভাঙন। শুক্রবার রাত থেকে যেহারে ভাঙন শুরু হয়েছে তাতে ভয়ে এলাকাবাসী বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র যেতে শুরু করেছে।

বর্ষার শুরুতেই গঙ্গার ভাঙন, কালিয়াচক-‌৩ ব্লকের মানুষ কোনও দিন দেখেনি। সাধারণত জলস্ফীতির সঙ্গে গঙ্গার ভাঙন যেমন শুরু হয়, তেমনই জল কমার সময় বর্ষার শেষের দিকেও ভাঙন দেখা যায়। কিন্তু এবার বর্ষার শুরুতেই যে ভয়াবহ রূপ তা দেখে এলাকাবাসীদের আশঙ্কা এবার ব্যাপক ভাঙন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

দু’‌দিনের মধ্যে প্রায় ৩ থেকে ৪ বিঘা জমি তলিয়ে গেছে গঙ্গায়। তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দারা ঘর ছাড়তে শুরু করেছেন। মঙ্গলবার রাত থেকে ভাঙন শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাতে তার তীব্রতা ছিল অনেক বেশী।

মূলত গঙ্গার পাড়ের জমিতে ভুট্টা চাষ করে থাকেন এলাকাবাসী। সেই চাষের জমি এখন গঙ্গাগর্ভে। এখন বসতজমিতে ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিতে শুরু করেছে। বাসিন্দারা বাড়িঘর ভাঙতে শুরু করেছেন। তাঁরা প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে চকবাহাদুরপুরের দিকে যেতে শুরু করেছেন।

সকাল থেকে ব্যস্ত ঘরের সামগ্রী সরানোর কাজে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন বছর তিনেক আগে বাড়ি গুলো তৈরি করি। যেহারে ভাঙন শুরু হয়েছে, তাতে আজ রাতেই মনে হয় বসতবাড়িটি গঙ্গায় তলিয়ে যেতে পারে। খুব কষ্ট হচ্ছে। নিজের ভিটেমাটি চলে যাচ্ছে গঙ্গায়। চোখের সামনে দেখতে হচ্ছে।’‌

চকবাহাদুরপুরের পঞ্চায়েত সদস্য অর্জুন মন্ডল বলেন,‘‌বর্ষার শুরুতে ভাঙন আমরা এই প্রথম দেখছি। জলস্ফীতির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ভাঙন হয়ে থাকে। কিন্তু এবার যেহারে শুরুতেই ভাঙন শুরু হয়েছে, তাতে এবার ব্যাপক ভাঙন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’ খবর পেয়ে এলাকা পরিদর্শনে যান বিডিও গৌতম দত্ত। এলাকার মানুষদের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ