কলকাতা: এদিন নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক নয়া প্রকল্পের ঘোষণা করলেন। যার ফলে মনে করা হচ্ছে আগামিদিনে কর্ম সংস্থানের ক্ষেত্রে এক বিরাট পরিবর্তন আসতে পারে।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন ঘোষণা করেছেন দেউলা-পাচামি ব্লকের কয়লা উত্তোলন নিয়ে এক বিশেষ প্রকল্পের। এর ফলে তিনি জানিয়েছেন প্রায় এক লক্ষ কর্মসংস্থান হতে পারে। এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন এই প্রকল্প নিয়ে কাজ চলাকালীন বায়ু দূষণের দিকেও খেয়াল রাখা হবে।

এই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করার জন্য মুখ্যসচিবের নির্দেশে তৈরি করা হয়েছে একটি কমিটি। সেই কমিটি সকল বিষয় দেখে রিপোর্ট দেওয়ার পরে এই কাজ শুরু করা যাবে। তিনি আরও বলেন, ওই এলাকায় প্রায় ৪০০ পরিবারের বাস এবং তাদের মধ্যে ৪০ শতাংশ হল আদিবাসী। সুতরাং এই প্রকল্প রুপায়নের আগে তাদের সঙ্গেও কথা বলা হবে বলে সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও এই প্রকল্পের জন্য দূষণ পর্ষদকে ১০০ কোটি টাকার তহবিল তৈরি রাখতে বলা হয়েছে। এই প্রকল্প রুপায়ন করা গেলে আগামী ১০০ বছরে বাংলাতে আর কয়লার অভাব হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন মমতা।

এই প্রকল্পের ফলে বাংলার বুকে তৈরি হবে কোল হাব। যার ফলে বাংলার বেকার যুবক যুবতীদের কাজের আরও সুযোগ আসবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই প্রকল্প রূপায়ন করা গেলে অর্থনীতি চাঙ্গা হবে বলেও মনে করছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ব্লকে কয়লা ছাড়াও বাণিজ্যিক ভাবে পাথর উত্তোলনের কাজও হবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পাঁচ বছর সময় লাগবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান এই প্রকল্পের ফলে কেবলমাত্র রাজ্য সরকারই নয় আয় হবে কেন্দ্রীয় সরকারেরও। এই সম্পূর্ণ প্রকল্প রূপায়ন করতে গেলে খরচ হবে প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকারও বেশী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানিয়েছেন আগামী মাসে এই নিয়ে মউ স্বাক্ষর করা হতে পারে এবং এর ফলে জঙ্গলমহলের মানুষদের উপকার হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আরও জানান এই প্রকল্প শুরু আগে স্থানীয়দের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে তার পরে কাজে হাত দেওয়া হবে। তাড়াহুড়ো না করে তিনি ধীরে সুস্থে এই প্রকল্প নিয়ে এগোতে চান বলেও জানিয়েছেন সাংবাদিকদের।