স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শপথ গ্রহণ করার আগেই কলকাতায় লাড্ডু উৎসব শুরু হয়ে গিয়েছে।  একশো-দুশো নয়, এক লাখ লাড্ডু তৈরির কাজ শুরু করেছে এক বিজেপি নেতা। রাজ্য বিজেপির সম্পাদক তথা কলকাতা পুরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিজয় ওঝা এই লাড্ডু উৎসবের আয়োজন করেছেন বৃহস্পতিবার সকালে।

সন্ধ্যায় মোদীর শপথ শেষ হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বড়বাজার-কালাকার স্ট্রিটের পাড়ায় পাড়ায় লাড্ডু বিতরণ শুরু হবে। উদ্যোক্তা বিজয় ওঝা Kolkata24x7 কে বলেন, “বুধবার রাত থেকেই লাড্ডু তৈরি করা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই ৮০ হাজার লাড্ডু তৈরি হয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মধ্যেই এক লক্ষ লাড্ডু তৈরির কাজ শেষ হবে।” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর শপথ গ্রহণ এবং মোদী সরকারের দ্বিতীয় ইনিংস শুরুকে স্মরণীয় করে রাখতেই এই উদ্যোগ। কালাকার স্ট্রিটে মঞ্চ বাঁধা হয়েছে।

 

মোদীর শপথকে ঘিরে যেন উৎসবের মেজাজ। ব্যান্ডপার্টি এবং খাওয়া দাওয়ার আয়োজনও তৈরি। লাড্ডু যারা তৈরি করছেন, সেই কারীগরেরাও খুশি। সকলেই মোদী সরকারের দ্বিতীয় ইনিংসে অপেক্ষায় রয়েছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।