সিডনি: স্বপ্নের ফর্মে মার্নাস ল্যাবুশেন। ২০১৯ যেখানে শেষ করেছিলেন, নতুন বছরটা যেন সেখান থেকেই শুরু করলেন মার্নাস ল্যাবুশেন। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তৃতীয় তথা সিরিজের অন্তিম টেস্টের প্রথমদিন সম্পূর্ণ করেছিলেন কেরিয়ারের চতুর্থ শতরান। আর দ্বিতীয় দিন চতুর্থ শতরানকে কনভার্ট করলেন কেরিয়ারের প্রথম দ্বিশতরানে।

ল্যাবুশেনের দ্বিশতরানে ভর করে তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড়ে চড়ল অস্ট্রেলিয়া। সিডনিতে অজিদের প্রথম ইনিংস শেষ হল ৪৫৪ রানে। জবাবে দ্বিতীয়দিনের শেষে কোন উইকেট না হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৬৩ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড।

ল্যাবুশেনের কেরিয়ারের প্রথম দ্বিশতরান এদিন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে রইল আরও একটি কারণে। ২০১৯ টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী (১১০৪) অস্ট্রেলিয়ার প্রথম সারির এই ব্যাটসম্যান শনিবার সিডনিতে টপকে গেলেন সতীর্থ স্টিভ স্মিথকে। টেস্ট ক্রিকেটে রানের গড়ের নিরিখে প্রাক্তন অধিনায়ককে ছাপিয়ে গেলেন এই তরুণ তুর্কি। স্টিভ স্মিথের ৬২.৮৪ ব্যাটিং গড় টপকে নিজের ব্যাটিং গড়কে ৬৩.৬৩-তে নিয়ে গেলেন বছর পঁচিশের ডানহাতি ব্যাটসম্যান। শুধু তাই নয়, ঘরের মাঠে এদিন প্রাক্তনী নিল হার্ভের একটি রেকর্ড ভাঙেন বিশ্বের চার নম্বর ব্যাটসম্যান।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১৯৫২-৫৩ ঘরের মাঠে পাঁচটি টেস্টে রেকর্ড ৮৩৪ রান করেছিলেন প্রাক্তন অজি ব্যাটসম্যান। ঘরের মাঠে পাঁচটি টেস্ট মিলিয়ে সেই রেকর্ড ভেঙে ৮৩৭ রানের নয়া রেকর্ড সেট করলেন ল্যাবুশেন। প্রথমদিন ১৩০ রানে অপরাজিত অজি ব্যাটসম্যান অধিনায়ক টিম পেইনকে সঙ্গে নিয়ে কেরিয়ারের প্রথম দ্বিশতরান পূর্ণ করেন এদিন। নার্ভাস ১৯৯-তে দাঁড়িয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করার পর অবশেষে ৩৪৬ বলে কেরিয়ারের প্রথম দ্বিশতরানের স্বাদ পান ল্যাবুশেন।

গতকাল তৃতীয় উইকেটে স্টিভ স্মিথের সঙ্গে মূল্যবান ১৫৬ রানের অবদান রাখার পর শনিবার অধিনায়ক পেইনের সঙ্গে জুটি বেঁধে ষষ্ঠ উইকেটে ৭৯ রান যোগ করেন তিনি। শেষ অবধি ৫১৬ মিনিট ক্রিজে থেকে ১৯টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ২১৫ রান (৩৬৩ বল) করে মাঠ ছাড়েন তিনি। টড অ্যাসলের ডেলিভারিতে কট অ্যান্ড বোল্ড হন ল্যাবুশেন। পেইন করেন ৩৫। শেষদিকে ২২ রানের অবদান রাখেন মিচেল স্টার্ক। ৪৫৪ রানে শেষ হয় অজিদের প্রথম ইনিংস।

জবাবে দ্বিতীয় দিন ২৯ ওভার ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়েছে কিউয়িরা। তাতে কোনও উইকেট না খুঁইয়ে ৬৩ রান তুলেছে তাঁরা। স্টার্ক-কামিন্সদের ভালোই সামলালেন দুই ওপেনার টম ল্যাথাম ও টম ব্লান্ডেল। দিনের শেষে ২৬ রানে অপরাজিত ল্যাথাম। অপরাজিত ব্লান্ডেলের সংগ্রহে ৩৪ রান।

‘আমার জন্য দারুণ একটা দিন, তবে তার চেয়েও বড় কথা অস্ট্রেলিয়ার জন্য এটা দুর্দান্ত দিন।’ দ্বিশতরানের পর জানান ল্যাবুশেন।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV