সিডনি: ২০১৯ অগস্টে অ্যাশেজ চলাকালীন টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট হয়ে ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় নাম খোদাই করে নিয়েছিলেন তিনি। এরপর যত দিন গিয়েছে উইলো হাতে ধীরে ধীরে বিশ্ব ক্রিকেটের সমীহ আদায় করে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মার্নাস ল্যাবুশেন। ২০১৯ টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক (৯৭৫রান) এবার দরাজ সার্টিফিকেট আদায় করে নিলেন ব্যাটিং মায়েস্ত্রো সচিন রমেশ তেন্ডুলকরের।

দাবানল ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্যার্থে আগামী রবিবার মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে একটি ক্রিকেট ম্যাচ। রিকি পন্টিং একাদশ বনাম শেন ওয়ার্ন একাদশের মধ্যে অনুষ্ঠিত হতে চলা তারকাখোচিত সেই ম্যাচে যোগ দিতে চলেছেন মাস্টার ব্লাস্টারও। পন্টিং একাদশের কোচ হিসেবে শুক্রবার সিডনি পৌঁছে গেলেন সচিন। আর সেখানে পৌঁছে মার্নাসের ফুটওয়ার্কের প্রশংসা করে লিটল মাস্টার যা বললেন, তা শুনে নিজেকেই নিজে চিমটি কাটতে পারেন টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের চার নম্বর ব্যাটসম্যান। সচিন জানালেন, ল্যাবুশেনের মধ্যে তিনি নিজেকে খুঁজে পেয়েছেন।

হ্যাঁ, তরুণ অজি ব্যাটসম্যানের ফুটওয়ার্ক মুগ্ধ করেছে কিংবদন্তিকে। সিডনি পৌঁছে সাংবাদিক সম্মেলনে তাই সচিন বললেন, ‘মার্নাস ল্যাবুশেনের ফুটওয়ার্ক অতুলনীয়। ভবিষ্যতে ওর মধ্যে আমার অনুরূপ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা প্রবল। ওর মধ্যে একটা ব্যাপার আছে।’ এযাবৎ কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় প্রশংসাসূচক মন্তব্যটা যে ল্যাবুশেন মাস্টার ব্লাস্টারের থেকেই পেলেন, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই আইসিসি নিজেদের টুইটার পেজে সচিনের উক্তি উদ্ধৃত করে লিখল, ‘ল্যাবুশেনের জন্য সবচেয়ে বড় শংসা।’

উল্লেখ্য, প্রাথমিকভাবে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শনিবাসরীয় বিগ ব্যাশ ফাইনালের আগে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল এই চ্যারিটি ম্যাচের। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফ থেকে অনুমতি না মেলায় রবিবার মেলবোর্নের জংশন ওভালে অনুষ্ঠিত হবে চ্যারিটি ম্যাচটি। ত্রিদেশীয় সিরিজের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচের পর মাঠ মাতাতে নামবে রিকি পন্টিং একাদশ ও শেন ওয়ার্ন একাদশ। শেন ওয়ার্ন একাদশের কোচ হিসেবে ওই ম্যাচে ডাগ-আউটে থাকবেন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি পেসার কোর্টনি ওয়ালশ।

সিডনি পৌঁছে যুবরাজকে পাশে নিয়ে সচিন জানান, ‘সাম্প্রতিক সময়ে দাবানলের আঁচে মানুষ ও অসংখ্য বন্যপ্রাণের মৃত্যু আমায় নাড়িয়ে দিয়েছে। তাই এই মহৎ উদ্যোগ থেকে আমি দূরে থাকতে পারিনি।’ এই ক্রিকেট ম্যাচের শরিক হওয়ার জন্য প্রথম বার্তাটা এসেছিল বন্ধু ব্রেট লি’র থেকে, তাও জানান মাস্টার ব্লাস্টার।