সুরাত: লকডাউনের মধ্যেও করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েই কাজ করানো হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে প্রতিবাদে সরব হলেন শ্রমিকরা৷ গুজরাতের সুরাতে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন শ্রমিকরা৷ বেসরকারি সংস্থার কার্য়ালয়ে পাথর ছুঁড়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন কয়েকশো শ্রমিক৷ অবিলম্বে তাঁদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা৷

গোটা দেশে লাফিয়ে বাড়ছে মারণ করোনার সংক্রমণ৷ মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৯,৪৩৫। এখনও পর্যন্ত দেশে নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ৯৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সংক্রমণ যেমন বাড়ছে তেমনি অনেকে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর যথোপযুক্ত চিকিৎসার জেরে সুস্থও হচ্ছেন। এখন পর্যন্ত গোটা দেশে করোনামুক্ত হয়েছেন ৬৮৬৯ জন।

গুজরাতেও ক্রমেই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মারণ করোনার সংক্রমণ। করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। কিন্তু অভিযোগ, লকডাউনের সব নির্দেশ অমান্য করেই সুরাতের ডায়মন্ড বোর্স নামে এক সংস্থা শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করাচ্ছিল।

শ্রমিকরা বাড়ি ফিরতে চাইলেও সংস্থার কর্তা তাঁদের সেই দাবিতে কর্নপাত করেননি বলে অভিযোগ। এই অবস্থায় মঙ্গলবার সকালে একজোট হয়ে বিক্ষোভ শুরু করে শ্রমিকরা।

সংস্থার কার্যালয় লক্ষ্য করে পাথর ছুড়তে থাকেন কয়েকশো শ্রমিক। তাঁদের অভিযোগ, লকডাউন চালাকালীন কাজ করতে তাঁদের একপ্রকার বাধ্য করছে কর্তৃপক্ষ। বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করতে বললেও সেকথায় কান দিচ্ছেন না সংস্থার কর্তারা।

মঙ্গলবার সকালে একজোট হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন শ্রমিকরা। সংস্থার কার্যালয় ঘিরে শুরু হয় বিক্ষোভ। অবিলম্বে তাঁদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করার দাবি তুলে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন কয়েকশো শ্রমিক। শেষমেশ পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV