নয়াদিল্লি: বিশ্ব মহামারী নোভেল করোনাকে বোল-আউট করতে এবার আসরে নামলেন অনিল কুম্বলে। দেশজুড়ে যখন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, সংকটে দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবা। তখন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আপদকালীন তহবিলে অর্থ সাহায্য করলেন অনিল কুম্বলে।

তবে করোনা তহবিলে কী পরিমাণ অর্থ সাহায্য করেছেন তিনি, সেটা খোলসা করে জানাননি কিংবদন্তি লেগ-স্পিনার। তবে তিনি যে অর্থ সাহায্য করেছেন সেটা টুইটের মাধ্যমে অনুরাগীদের জ্ঞাত করেছেন ‘জাম্বো’। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার ও কোচ লিখেছেন, করোনাকে বোল-আউট করতে আমাদের একত্রিত হয়ে এই লড়াই লড়তে হবে। আর সেই লক্ষ্যে আমি কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর করোনা তহবিলে আমি আমার সামান্য দান তুলে দিলাম। আপনারাও করুন।’

করোনা তহবিলে কুম্বলের এই অনুদানের আগে প্রাক্তন ও বর্তমান ক্রিকেটার হিসেবে করোনা তহবিলে অর্থ তুলে দিয়েছেন সচিন তেন্ডুলকর, বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, মিতালি রাজ, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, সুরেশ রায়না, গৌতম গম্ভীররা। সুরেশ রায়না ৫২ লক্ষ, সচিন ও গম্ভীর ৫০ লক্ষ টাকা করে অর্থ সাহায্য করেছেন। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় রাজ্যের ফুটপাতবাসীদের মুখে অন্ন তুলে দিতে ৫০ লক্ষ টাকা অর্থ সাহায্য করেছেন।

তবে সবাইকে ছাপিয়ে ক্রিকেটার হিসেবে করোনা তহবিলে সর্বোচ্চ অর্থ তুলে দিয়েছেন ‘হিটম্যান’ রোহিত শর্মা। মঙ্গলবার নিজের টুইটারে করোনা মোকাবিলায় অর্থ সাহায্যের কথা নিজেই জানান বিরাট কোহলির ডেপুটি৷ ৮০ লক্ষ টাকার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে ৪৫ লক্ষ টাকা, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন রোহিত৷ এছাড়াও দেশের ক্ষুধার্তদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা এবং ওয়েলফেয়ার স্ট্রে ডগসদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা জানান ‘হিটম্যান’৷