কলকাতা: অনিল কুম্বলে, ভারতীয় দলের প্রাক্তন কিংবদন্তি লেগস্পিনার থেকে আজ টিম ইন্ডিয়ার একাদশতম কোচ৷সচিন-সৌরভ-লক্ষ্ণণের উপদেষ্টা কমিটির নির্বাচিত প্রার্থীকেই বেছে নিয়েছে বিসিসিআই৷আর বাকি পাঁচজন স্পিনারের থেকে বলটা বরাবারই বেশ জোরেই করতেন কুম্বলে৷তাই তাঁকে সতীর্থরা মজা করে ‘জাম্বো’ বলেই ডাকতেন৷কোচের দায়িত্ব বর্তাবে ধোনিদের আসন্ন ক্যারিবিয়ান সফর থেকেই৷কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা না থাকলেও মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের মেন্টর হিসেবে কাজ করেছেন তিনি৷এবার এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক কুম্বলের কেরিয়ার গ্রাফ৷

১) ১৩২টি টেস্ট, ২৭১টি ওয়ানডে ও ৫৪টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন কুম্বলে৷
২) ১৯৯০-এর ২৫ এপ্রিল ওয়ানেডে ম্যাচেই জাতীয় দলে অভিষেক করেন কুম্বলে৷শেষ ওয়ানডে ২০০৭-এর ১৯ মার্চ বারমুডার বিরুদ্ধে৷
৩) ১৯৯০-তেই টেস্ট অভিষেকও হয় কুম্বলের৷৯ অগস্ট ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্যাপ মাথায় ওঠে তাঁর৷২০০৮-এর ২৯ অক্টোবর শেষ টেস্ট খেলেন বেঙ্গালুরুর এই বাসিন্দা৷
৪) ১৯৯৯-এ চৌঠা ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কোটলায় দশ উইকেট নিয়েছিলেন কুম্বলে৷বিশ্বক্রিকেটে এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার নজির শুধুমাত্র জিম লেকার ও কুম্বলেরই দখলে রয়েছে৷
৫) টেস্টে ৬১৯টি উইকেট নিয়েছেন কুম্বলে৷দেশের জার্সিতে এত উইকেট আর কোনও ক্রিকেটারের নেই৷বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক উইকেট সংগ্রহকারীদের তালিকায় তিন নম্বরে তিনি৷একে মুরলীথরন (১৩৩ টেস্টে ৮০০) ও দু’নম্বরে ওয়ার্ন (১৪৫ টেস্টে ৭০৮)
৬) ১৯৯৫-এ অর্জুন পুরস্কার ও ২০০৫-এ পদ্মশ্রী সম্মান৷
৭) ১৯৬-এ উইজডেনের বিচারে বর্ষসেরা ক্রিকেটার৷
৮) ওয়াডা-র অ্যাথলিট কমিশনে আসেন৷
৯) ২০১০-এ কর্ণাটক ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন৷
১০) ২০১২-তে আইসিসি-র ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান৷
১১) ২০১৫-এ আইসিসি-র হল অফ ফেমে আসেন কুম্বলে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।