নয়াদিল্লি: ভারতের প্রথম চায়নাম্যান বোলারের কাছে বছরখানেক আগে ছবিটা ছিল অন্যরকম। বিদেশের মাটিতে ভারতের স্পিনিং বিভাগে সবচেয়ে ভরসার মুখ ছিলেন কুলদীপ যাদব। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে স্পিনিং বিভাগে অন্যতম ভরসার মুখ কুলদীপের পারফরম্যান্সের গ্রাফ নেমেছে অনেকটাই। তাঁর প্রতি আগের সেই আস্থা হারিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টও। কিন্তু কুলদীপ বদ্ধপরিকর টি-২০ বিশ্বকাপের দলে নিজের জায়গা পাকা করার বিষয়ে। আর সেজন্য আসন্ন কোটিপতি লিগে নিজের সেরা পারফরম্যান্স মেলে ধরতে মরিয়া এই চায়নাম্যান বোলার।

সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দলে জায়গা না পাওয়া নিয়েও কোনও ক্ষোভ নেই কুলদীপের মনে। তাঁর কথায়, ‘আমার মনে হয় না কোনও সিদ্ধান্ত আমার বিপক্ষে গিয়েছে। এটা সম্পূর্ণ কম্বিনেশনের ব্যাপার। এমনিতেই নিউজিল্যান্ডের উইকেটের চরিত্র সম্পূর্ণ আলাদা। ওখানে টেস্ট ক্রিকেটে স্পিনিং ট্র্যাক বিশেষ থাকে না। সবচেয়ে বড় কথা এটা লম্বা সিরিজও ছিল না।’ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিডনিতে বছর দু’য়েক আগে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন কুলদীপ। শেষ টি-২০ সিরিজটি খেলেছিলেন চলতি বছর শুরুতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। টেস্ট সিরিজে না খেললেও সদ্য শেষ হওয়া নিউজিল্যান্ড সফরে একটি ওয়ান-ডে ম্যাচে একাদশে ছিলেন কুলদীপ।

এমন সময় আসন্ন কোটিপতি লিগ নিয়ে ইন্ডিয়ান স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড ইভেন্টে কুলদীপ জানালেন, ‘আইপিএল এমন একটা প্ল্যাটফর্ম, যেটা প্রত্যেক বছর পরিবর্তন হয়। আর সেই পরিবর্তন আয়ত্ত করতে নিজেকে সক্রিয় রাখাটা জরুরি। এই মুহূর্তে আইপিএলের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত আমি। জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের জন্য আইপিএল খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ কুলদীপ আরও বলেন, ‘প্রত্যেক ক্রিকেটারই বেশি করে খেলার সুযোগ পেতে চায়। কারণ যত বেশি তুমি খেলবে তত উন্নতি করার সুযোগ পাবে। আইপিএল এমন একটা জায়গা যেখানে টানা দেড়মাস তুমি খেলার মধ্যে দিয়ে নিজের পারফরম্যান্স ভালো করার সুযোগ পাবে।’

একইসঙ্গে কুলদীপের কথায়, ‘প্রত্যেকের জীবনেই ভালো সময় খারাপ সময় আসে। কিন্তু খারাপ সময় তোমাকে হাল ছাড়লে চলবে না।’ অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়াগামী বিশ্বকাপ দলের স্পিনিং বিভাগে যুবেন্দ্র চাহালের সঙ্গে জায়গা করে নেওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী কুলদীপ। অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে ঋষভ পন্ত এবং কেএল রাহুল দু’জনেরই উইকেটকিপিংয়ের প্রশংসা করেন তিনি। তবে ভারতীয় দলের ড্রেসিংরুম ধোনির অনুপস্থিতি পদে পদে অনুভব করে, সাফ জানান কুলদীপ।