কলকাতা: মঞ্চ থেকে সিনেমা, সিরিয়াল, টেলিফিল্ম কোথাও এক টুকরো মাটি ছাড়তে নারাজ সে। ‘বিনা যুদ্ধে দেব বা সূচাগ্র মাটি”-এই মন্ত্রে দীক্ষিত কৌশিক সেন ,এবার আসছেন ওয়েবের পর্দায়।

‘চলতি জোয়ারের টানে সাইবার দুনিয়ায় দেখা যাবে তাঁকেও। তাও আবার একসঙ্গে দু’টিতে! ‘মনসুন মেলডিজ়’ ও ‘ল্যাবরেটরি’ দু’টি ওয়েবসিরিজ়ে কাজ করছেন কৌশিক। তবে এক প্ল্যাটফর্মে নয়! দু’টি ভিন্ন পোর্টালে হবে সিরিজ় দু’টি।

‘ল্যাবরেটরি’ রবীন্দ্রনাথের গল্প অনুযায়ী। তবে কী সেটা। সেই সাসপেন্স এখনই ভাঙতে চাইছেন না কৌশিক। তবে ওয়েব সিরিজ নিয়ে তিনি বলেন, “মাধ্যমে তো বিশেষ পরিবর্তন হয় না, আসলে তো আমায় অভিনয়টা করতে হবে! ওয়েবসিরিজ় নিয়ে আমার শুধু একটাই সমস্যা ছিল।

তবে মাঝে, ওটা সবার হাতে পৌঁছে দিতে হবে বলে পুরো ব্যাপারটাই যেন কেমন অ্যাডাল্ট কনটেন্ট হয়ে উঠছিল। কিন্তু তাতে কী বেশি মানুষ দেখেন? ওর চেয়ে অনেক বেশি সেনশুয়াল জিনিস তো ইউটিউবেই পাওয়া যায়! হয়তো সে কারণেই ব্যাপারটা পালটাচ্ছে।”

এদিকে জানা যাচ্ছে, ‘মনসুন মেলডিজ়’ খুব পরিচ্ছন্ন একটা নতুন কনটেন্ট। এই গল্পটি নিয়ে ফ্লোরে কৌশিক সেন। সূত্রের খবর, দেড়দিনের শুটিংয়েই নাকি এই সিরিজের শ্যুটিং শেষ করতে হবে কৌশিককে। তাই এবছর পয়লা বৈশাখটা নাকি অভিনেতার সেটেই কাটবে!

প্রসঙ্গত, এবছর জাতীয় সম্মান এসেছে কৌশিক সেনের ঘরে। জাতীয় মঞ্চে এবার সেনা অভিনেতার সম্মান পেয়েছে অভিনেতার ছেলে ঋদ্ধি সেন। ‘নগরকীর্তন’ ছবির সুবাদে মাত্র আঠেরো বছর বয়সে সেরা বাজি খেলে ফেলেছে সে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।