কলকাতা: সীমান্তের বাঁধন থাকলেও আমাদের মনে কোনও বন্ধন নেই। তবে বিভিন্ন আইনগত কারণে শিল্পীদের অসুবিধার মধ্যে পড়তে হয়। তাও যদি সেটা হয় বিদেশ। আশা রাখি সীমান্তের কাঁটাতার পেরিয়ে দুই বাংলাতে সৌহার্দ্য বার্তা দেবে মিস্টিক মেমোয়ার।

২৫ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটা জানালেন পরিচালক অপরাজিতা ঘোষ।

পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশে ইতিমধ্যেই বহুল আলোচিত তাঁর ছবি মিস্টিক মেমোয়ার। সোমবার নন্দনে ছবির প্রদর্শন উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে পরিচালক অপরাজিতা জানান, তাঁর প্রথম চলচ্চিত্র বাংলাদেশে জনপ্রিয় হবে।

তিনি বলেন ইতিমধ্যেই ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবে স্থান পেয়েছে এই ছবি। অন্যতম মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় উপস্থাপক জুলহ্বাজ জুবায়ের। সেখানেও সেই কারণে ছবি নিয়ে চলছে চর্চা।

মিস্টিক মেমোয়ার চলচ্চিত্রের অভিনেতা জুবায়ের কলকাতায় এসে শুটিং করেছিলেন। তাঁর চরিত্রে ফুটে উঠেছে নন্দিত সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের অমর চরিত্র হিমু। বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমে এই বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে। হিমু চরিত্রটি দুই বাংলার পাঠকের কাছে বিশেষ পরিচিত।

সাংবাদিক সম্মেলনে পরিচালক জানিয়েছেন, আমাদের ভাষা এক হলেও দুই দেশ হওয়ার কারণে শিল্পী ও কলাকুশলীদের বিভিন্ন সময় আইনত জটিলতায় পড়তে হয়।

এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ছবিতে জুবায়েরকে বেছে নেওয়া তাকে নিয়ে কলকাতায় অভিনয় করানোর কাজ কঠিন ছিল। কারণ লোকসভা নির্বাচনের সময় শুটিং হয়। তারই মধ্যে কলকাতা পুলিশের প্রভূত সাহায্য মিলেছে। সীমান্তের ওপারে ঢাকায় ছবিটি নিয়ে চলছে আলোচনা।

অপরাজিতা ঘোষের বহু আলোচিত তথ্যনির্ভর ছবি ‘ডান্স অফ জয়’ বাংলাদেশ-রাশিয়া দক্ষিণ কোরিয়া সহ বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে নজর কেড়েছে আগেই। রবীন্দ্র নৃত্যের উপর ভিত্তি করে তৈরি এই ডকু ফিচারটি তাঁকে অভিনেত্রী থেকে পরিচালকের পরিচিতি এনে দেয়।

তার পরেই প্রথম ছবি তৈরি করতে মনস্থির করেন অপরাজিতা। তৈরি হয় মিস্টিক মেমোয়ার। এই ছবি মূলত মানুষের প্রধান পাঁচটি অনুভূতির উপর ভিত্তি করেই পৃথক গল্পের বুনন। সেই গল্পকে এগিয়ে নিয়ে চলে ঘর পালানো খুদে পড়ুয়া ঋশু ও আশ্চর্য মানুষ জ্যোতি।

নগর কেন্দ্রিক জীবনের টানাপোড়েনে অস্থির পরিস্থিতির আড়ালে অনুভূতির সূক্ষ্ম অথচ তীব্র উপস্থিতি ছবির বিষয়বস্তু। জটিল মানবিক পাটিগণিতে ঘুরপাক খাওয়া চরিত্রদের মধ্যে সেই ভাব পরিষ্কার ফুটে উঠেছে। উৎসবের আবহে হল ভরতি দর্শক পরিচালকের বাড়তি পাওনা।