কলকাতা: সক্রিয় হয়েছে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা, যার জেরে শীতের মরসুমের আবহাওয়ায় এল বড়সড় পরিবর্তন। শুক্রবার বৃষ্টির আশঙ্কা শোনাল হাওয়া অফিস। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলায়। আবহাওয়া দফতরের দিক নির্দেশ জানাচ্ছে, দক্ষিণবঙ্গে কার্যত শীতের বিদায় পর্ব শুরু হয়ে গেল। তবে কদিন পরে ফের অল্প কিছুদিনের জন্য পাওয়া যাবে শীতের আমেজ।

শুক্রবার সকাল থেকেই সূর্য্যিমামার টিকিটিও খুঁজে পাওয়া যায়নি। আকাশেরও মেঘ ভার। কুয়াশা ও হালকা মেঘের কারণে তাপমাত্রা সামান্য ঊর্দ্ধমুখী। হাওয়া মোরগের পূর্বাভাষে আগেই জানানো হয়েছিল, ওড়িশা লাগোয়া উপকূল ও পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে।

এর কারণ হিসেবে জানা গিয়েছে, পশ্চিমি ঝঞ্ঝার প্রভাবে বঙ্গোপসাগর থেকে উষ্ণ, জলীয় বাষ্প ভরা দক্ষিণী বাতাস স্থলভাগে ঢুকছে। আর উত্তর থেকে আসছে উত্তুরে বাতাস। এই দুইয়ের সংঘর্ষেই বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাতের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়া দফতরের তরফে বলা হয়েছে, ওড়িশায় ঝড়বৃষ্টির পরিমাণ বাড়ার ফলে তার প্রভাব পড়বে পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়ায়।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, ৮ তারিখও বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গে। এরপর ৯ থেকে ধীরে ধীরে আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাবে। ৯ তারিখের পর থেকে কলকাতার তাপমাত্রা ১৩ থেকে ১৪ ডিগ্রিতে নামবে। থাকবে শীতের আমেজ।

বৃহস্পতিবার এবং বুধবার কলকাতায় যেখানে সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৬ ও ২৬ ডিগ্রির আশেপাশে সেখানে শুক্রবার সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪ ও ১৭ ডিগ্রি। ঝঞ্ঝার প্রভাবে কিছুটা বেড়েছে তাপমাত্রা।