স্টাফ রিপোর্টার,কলকাতা: জুনিয়র ডাক্তারদের মারধরের পর নিরাপত্তায় লালবাজারে জরুরি বৈঠক৷ এরপরই চালু হল পুলিশের হেল্পলাইন৷ কলকাতার সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল, মেডিক্যাল কলেজ, চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত সব চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী এবং রোগীদের যে কোন নিরাপত্তা এবং সুরক্ষা জনিত সমস্যায় যাতে কলকাতা পুলিশ দ্রুত সাহায্য করতে পারে, তার জন্য আজ থেকে চালু হল কলকাতা পুলিশের হেল্পলাইন নম্বর।

নম্বরটি সপ্তাহের সাতদিনই চব্বিশ ঘন্টা চালু থাকবে৷ Medical Security help line no- 18003458246.

এছাড়া ডাক্তারদের নিরাপত্তায় নিযুক্ত হলেন নোডাল অফিসার। বাড়ানো হবে সিসিটিভি-র সংখ্যা।নবান্নে বৈঠকের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই লালবাজারে একটি বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, হাসপাতালগুলোতে ডাক্তারদের নিরাপত্তার দায়িত্বে একজন নোডাল অফিসারকে নিযুক্ত করা হয়েছে৷

ডিসি কমব্যাট ফোর্স এর নবিন্দর সিংকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাড়ানো হবে সিসিটিভি। স্থানীয় ডিসি অফিসের সঙ্গে সরাসরি লিঙ্ক থাকবে যাতে সেখান থেকেই নজরদারি করতে পারে পুলিশ।

জেলার ক্ষেত্রে এক জন করে নোডাল অফিসার থাকবেন। শহর ও শহরতলির হাসপাতালের ঢোকার সময় পুলিশের চেকিং৷ প্রতিটি হাসপাতালে বিপদ অ্যালার্ম৷ ইমার্জেন্সিতে রোগীর দু’জনের বেশি পরিজন নয়৷ প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে ইমার্জেন্সিতে কোলাপসিবল গেট তৈরি করা৷ হাসপাতালে রাজনৈতিক নেতারা গোলমাল পাকালে ছাড়া নয়৷

এছাড়া প্রস্তাব ছিল,সরকারি হাসপাতালে গ্রিভান্স সেল তৈরি করা হোক৷ এমন জায়গায় তা যেন তৈরি করা হয় যাতে মানুষের নজরে পড়ে৷ অভিযোগ থাকলে সেখানে মানুষ জানাবেন৷ সমাধান করার চেষ্টা করা হবে৷ জুনিয়র ডাক্তারের দাবির ভিত্তিতে গ্রিভান্স সেল তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে সমন্বয়ের জন্য বেশ কয়েকজন এক্সপার্ট থাকবেন৷ তারাই রুগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলবেন৷ যোগাযোগ রাখবেন৷ বহিরাগতদের আটকাতে বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে৷