সুভাষ বৈদ্য,কলকাতা: লকডাউন ৫ এর পাশাপাশি আনলক ১ শুরু হয়েছে৷ ফলে মানুষের ঢল নেমেছে শহরের রাস্তায়৷ কিন্তু করোনা বিপদ এখনও কাটেনি৷ তাই মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি সুরক্ষার জন্য পুলিশ বিলি করলেন মাস্ক৷

বাইরে বেরলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। তবু অনেকে মাস্ক ছাড়াই বাইরে বেরিয়ে আসছেন। শহরের যত্রতত্র ঘোরাফেরা করছেন মাস্ক ছাড়াই। লালবাজার সূত্রে খবর,’ট্রাফিক পুলিশ ও রাজ্য সরকারের তরফে মঙ্গলবার শহরের বিভিন্ন প্রান্তে মাস্ক বিলি করা হয়েছে৷ কলকাতা পুলিশ পথচলতি মানুষকে মাস্ক পরার অনুরোধ করেন৷

পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা নিয়েও সচেতন করেন৷ বলেন, মাস্ক না পরে বাইরে বেরিয়ে নিজের এবং অন্যদের বিপদ ডেকে আনবেন না জেনেশুনে। মনে রাখুন, মাস্ক ছাড়া বাইরে বেরনো এখন দণ্ডনীয় অপরাধ। মাস্ক পরুন, বিপদ এড়ান।

মাস্ক না পড়ার জন্য আইনানুগ ব্যবস্থাও নিচ্ছে লালবাজার৷ মাস্ক না পরে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসার জন্য বহু মানুষকে গ্রেফতারও করেছে কলকাতা পুলিশ৷ এবার এর পাশাপাশি কলকাতা পুলিশের মানবিক দিকটিও দেখা গেল৷

মঙ্গলবার সকাল থেকেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় কলকাতা পুলিশ বিলি করল মাস্ক৷ ওই দিন নিউ আলিপুর থানা, ভবানীপুর থানা, নিউ মার্কেট থানা, পূর্ব যাদবপুর ট্রাফিক গার্ড, কসবা ট্রাফিক গার্ডেও দেখা গেল মাস্ক বিলি করতে৷ করোনা যুদ্ধে সামিল কলকাতা পুলিশ৷ ফলে একের পর এক পুলিশ কর্মী আক্রান্ত হচ্ছেন৷ তাদের মধ্যে আবার অনেকেই সুস্থ হয়েও উঠেছেন৷

লালবাজার সূত্রে খবর, মে মাসের ২২ তারিখে গড়ফা থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর অতুল চন্দ্র দাস করোনা-আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন হাসপাতালে। তিনি সোমবার সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV