কলকাতা: আকাশছোঁয়া আলু,,পেঁয়াজ ও সবজির দাম৷ নবান্নে জরুরী বৈঠক৷ দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ তারপরই শহরের বাজারগুলোতে নজরদারি কলকাতা পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের (ইবি)৷ সব বিষয় খতিয়ে দেখে যত দ্রুত সম্ভব নবান্নে রিপোর্ট পাঠাবেন তারা।

শুক্রবার সকালেই কলকাতা পুরসভার বাজারগুলোতে হানা দেয় এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা৷ তাদের সঙ্গে ছিল সাদা পোষাকে কলকাতা পুলিশও৷ তারা ৮টি দলে ভাগ হয়ে বিভিন্ন বাজারে অভিযান চালান৷ বিশেষ করে কলকাতা পুরসভার বিভিন্ন বাজারে৷ সেখানে গিয়ে তারা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেন৷ তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয় কোন কোন সবজি কি দামে বিক্রি করছেন৷

তারপর এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা ব্যবসায়ীদের সরকারি রেট জানান৷ তাছাড়া বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গেও কথা বলেন৷ এবং তাদের সতর্ক করে দেন, যাতে আলু,, পেঁয়াজ ও সবজি বেশি দামে বিক্রি না করা হয়৷ সবজির পাশাপাশি তারা মাছ বাজারে নজরদারি চালান৷ পাইকারি বাজারের সঙ্গে খুচরো বাজারের দামের তফাত খতিয়ে দেখেন৷

অভিযোগ,পাইকারি বাজারে যে দামে আলু পেঁয়াজ সবজি বিক্রি হয়, তার থেকে অনেক বেশি দামে বিক্রি হয় খুচরো বাজারে। এদিন পাইকারির সঙ্গে খুচরো বাজারে দামের পার্থক্য খতিয়ে দেখেন এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা৷ তাদের নজরদারিতে ছিল ফড়েদের ভূমিকাও৷

আলু পেঁয়াজ সবজির আকাশছোঁয়া দাম নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে নবান্নে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য সরকারের টাস্কফোর্স ছাড়াও ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কৃষি দফতর ও মৎস্য দফতরের আধিকারিকেরা । এছাড়া কলকাতা পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, মুখ্য সচিব রাজীব সিনহা থেকে শুরু করে সরকারের শীর্ষ আমলারা। বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী জানান , আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে দাম নিয়ন্ত্রণে আসবে।

তিনি আরও জানান, ফঁড়েদের ঠেকাতে পুলিশ এবং এনফোর্সমেন্টকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। দরকার হলে সুফল বাংলা আরও বাড়ানো হবে। সুফল বাংলা প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৫৯ টাকায় বিক্রি করছে। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেন তিনি। বলেন, কেন্দ্রীয় সংস্থা ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল কোঅপারেটিভ মার্কেটিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া বা নাফেড চুক্তি ভেঙেছে । তাদের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছিল ২৫ টাকা কিলো দরে পেঁয়াজ দেবে। কিন্তু ওরা সেই চুক্তি ভঙ্গ করেছে।