ছবি সৌজন্যে- ইস্টবেঙ্গল আলট্রাস

নয়াদিল্লি: দৌড়ে রয়েছে কেরল এবং ভুবনেশ্বর। কিন্তু বাংলাদেশের বিরুদ্ধে শহর কলকাতার অনুরাগীদের সমর্থন ও আতিথেয়তায় মুগ্ধ জাতীয় দলের কোচ। তাই এশিয়া চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিরুদ্ধেও ঘরের মাঠের ম্যাচটি যুবভারতীতেই খেলতে চান সুনীলদের কোচ ইগর স্টিম্যাচ। ফলস্বরূপ আগামী বছর ২৬ মার্চ ওয়ার্ল্ড কাপ কোয়ালিফায়ারে ভারত বনাম কাতার ম্যাচ আয়োজনের দৌড়ে সামিল হল যুবভারতী।

১৫ অক্টোবর বাংলাদেশ ম্যাচ ঘিরে সুনীল-উদান্তাদের নিয়ে আবেগের মহাপ্রলয় দেখেছে ৬২ হাজারের যুবভারতী। জাতীয় দলকে নিয়ে কলকাতার সমর্থকদের উচ্ছ্বাস এতটাই তৃপ্ত করেছে জাতীয় দলের কোচকে, যে ইগর স্টিম্যাচ জানিয়েছেন কলকাতার এহেন সমর্থন আজীবন তাঁর মনের মনিকোঠায় থেকে যাবে। ম্যাচের পর ভারতীয় দলের ক্রয়েশিয়ান কোচ বলেন, ‘জীবনে প্রচুর বড় ম্যাচে অংশীদার হয়েছি। কিন্তু এই ম্যাচটা ভীষণ ভীষণ স্পেশাল হয়ে রয়ে যাবে।’ অর্থাৎ সুনীলদের গুরুত্বপূর্ণ আরও ম্যাচ আয়োজনের দায়িত্ব পাক যুবভারতী, স্টিম্যাচের হাবেভাবে তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

আর এরপরই কাতারের বিরুদ্ধে কোয়ালিফায়িং রাউন্ডের ম্যাচটি আয়োজন করতেও উঠেপেড়ে লেগেছে আইএফএ। একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানানো হয়েছে, ‘আগামী মার্চে ম্যাচটি আয়োজন করতে চেয়ে খুব শীঘ্রই এআইএফএফ’কে চিঠি পাঠাবে আইএফএ। স্টিম্যাচও ফের এমন জনসমর্থনের সামনে খেলতে মুখিয়ে রয়েছেন। দৌড়ে প্রবলভাবে সামিল হলেও কলকাতা ম্যাচটি আয়োজনের দায়িত্ব পাবে কীনা, সেটা বলার সময় যদিও এখন আসেনি।’

শুধু স্টিম্যাচই নন, যুবভারতীর গ্যালারির পরিবেশ তৃপ্তি দিয়েছে দলনায়ক সুনীল ছেত্রীকেও। তাই যুবভারতীকে সাবাশি দিয়েও সুনীল হতাশ পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাইয়ে প্রত্যাশামতো পারফরম্যান্স না করতে পারায়। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১-১ ড্র করার পরদিন সকালে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে নিজের মনের কথা ব্যক্ত করেন ভারতের দলনায়ক। লেখেন, ‘সল্টলেকের পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাইয়ে আমরা নিজেদের পারফরম্যান্স মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছি। গোটা ড্রেসিংরুম হতাশ। সুযোগ আদায় করেও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছে দল। তবে মাঠ এবং স্ট্যান্ডে একটা নতুন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তোমরা যেমন টার্ন-আপ করেছো আমরাও আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাব।’

কলকাতার সমর্থন নিয়ে কোচ-অধিনায়কের ভূয়সী প্রশংসার পর আগামী মার্চে যুবভারতী ফের বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ার আয়োজনের দায়িত্ব পায় কীনা, এখন সেটাই দেখার। তিন ম্যাচ থেকে মাত্র ২ পয়েন্ট সংগ্রহ করে আপাতত ‘ই’ গ্রুপের চতুর্থ দল হিসেবে বেশ কিছুটা পিছিয়ে রয়েছেন সুনীলরা।