কলকাতা:  সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা। শহরের বেশ কিছু জায়গায় হালকা থেকে অতি ভারী বৃষ্টিও হয়েছে। আগামী কয়েক ঘন্টায় ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস। আগামী কয়েক ঘন্টায় কলকাতা সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় এই বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। বৃষ্টি হবে বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, পশ্চিম ও পূর্ব বর্ধমানে। শনিবার বৃষ্টি বাড়বে বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ায় ৷ বৃষ্টি বাড়বে উত্তর ২৪ পরগণা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণায়। আজ শুক্রবারও মৎস্যজীবীদের জন্য সমুদ্রে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

অন্যদিকে খারাপ খবর উত্তরবঙ্গের জন্য। সেখানে আবার অতি বৃষ্টি পরিস্থিতিকে ভয়ঙ্কর করছে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস বাড়বে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। আরও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশ ও বিহারে শক্তি বাড়িয়েছে নিম্নচাপ । এই নিম্নচাপ অক্ষরেখা সরে আসছে উত্তরবঙ্গে। ফলে আগামী তিন দিন উত্তরবঙ্গে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সতর্কতা রয়েছে জারি করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হবে ১৪ তারিখ। ১৬ থেকে কমবে বৃষ্টির পরিমাণ ৷ জলপাইগুড়িসহ ৫ জেলায় অতিভারী বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

ভারী বৃষ্টি হবে মালদহ ও উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। এখনও পর্যন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী ১১ জুলাই দার্জিলিং, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, মালদহ, শিলিগুড়ি, কালিম্পিংয়ে বৃষ্টির পরিমাণ যথাক্রমে ২৮.৪, ২৮.৮, ১১.৫, ৩০.৬, ৪৪.০ মিলিমিটার। বৃষ্টিতে ভেঙে গিয়েছে লিস নদীর বাঁধ। ভাঙা বাঁধ দিয়ে জল ঢুকছে মালবাজার মহকুমার সাউগাও বস্তিতে। ইতিমধ্যে জলের স্রোতে ভেঙে গেছে যাতায়াতের রাস্তা। ধসে বিধ্বস্ত সড়ক যোগাযোগ। শিলিগুড়ি- সিকিম ও শিলিগুড়ি-ডুয়ার্স রুটে বন্ধ যান চলাচল। বৃষ্টিতে ধস নেমেছে সেবকের কাছে কালিঝোরায়। সেবক কালীবাড়ির কাছে দুই জায়গায় ধস নেমেছে বলে জানা গিয়েছে।বৃষ্টির জেরে ব্যাহত ডুয়ার্স রুটে ট্রেন চলাচলও।