কলকাতা: দৈনিক মৃতের নিরিখে যুগ্মভাবে প্রথম কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনা৷ উৎসবের মুখে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে আরও কয়েকটি জেলা৷ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ৷

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮০০ করে৷ অর্থাৎ দুই জেলায় মোট আক্রান্ত ১,৫৭৬ জন৷ বাকি ২১ জেলায় ২,২৮৯ জন৷ ফলে বাংলায় মোট আক্রান্ত ৩,৮৬৫ জন৷

শনিবারের রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, একদিনে কলকাতায় ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ কাকতালীয়ভাবে উত্তর ২৪ পরগনায়ও সংখ্যাটা একই৷ বাকি জেলায় দৈনিক মৃতের সংখ্যাটা ১০ এর নিচে৷ এই পর্যন্ত কলকাতায় মোট মৃত্যু হয়েছে ১,৯৭১ জনের৷

পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনায় মৃতের সংখ্যাটা বেড়ে ১,৩৫৭ জন৷ দুই জেলা মিলে মোট মৃতের সংখ্যা ৩,৩২৮ জন৷ বাকি ২১ জেলায় ২,৬৬৪ জন৷ ফলে বাংলায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৫,৯৯২ জনের৷ গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৮৪ জন৷ আর উত্তর ২৪ পরগনায় ৭৯২ জন৷

ফলে কলকাতায় মোট আক্রান্ত ৬৯,০৩১ জন৷ উত্তর ২৪ পরগনায় আক্রান্তের সংখ্যাটা বেড়ে ৬৩,৯৪২ জন৷ শহরে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটাও বাড়তে বাড়তে এখন ৭,৩৪৯ জন৷ পিছিয়ে নেই উত্তর ২৪ পরগনাও৷ এই জেলায় ৭,০২৫ জন৷ একদিনে বেড়েছে যথাক্রমে ১৬১ ও ১৬০ জন৷

তথ্য বলছে দুই ভাই অর্থাৎ দুই জেলার মধ্যে খুব মিল৷ যে মিল বাংলাকে অতিমারীর দিকে নিয়ে যাচ্ছে৷ তবে কলকাতায় গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬০৮ জন৷ এই পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ৫৯ হাজার ৭১১ জন৷ আর উত্তর ২৪ পরগনায় একদিনে ৬১৭ জন৷ মোট ৫৫ হাজার ৫৬০ জন৷

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনা ছাড়া উদ্বেগ বাড়াচ্ছে আরও কয়েকটি জেলার সংক্রমণ৷ এগুলো হল -হাওড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, হুগলি ও দুই মেদিনীপুর৷

এদিনের স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, মোট আক্রান্ত যথাক্রমে হাওড়া (২২,০০৭), হুগলি (১৫,৫৬৩), দক্ষিণ ২৪ পরগনায়(২১,১১৬ ),পূর্ব মেদিনীপুর ( ১৩,০৭২) ও পশ্চিম মেদিনীপুর ১১,৯৫২ জন৷ বাকি জেলায় সংক্রমণ ১০ হাজারের নিচে৷

একদিনে যে ৬১ জনের মৃত্যু হয়েছে তাদের মধ্যে কলকাতার ১৫ জন৷ উত্তর ২৪ পরগনার ১৫ জন৷ দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৪ জন৷ হাওড়ার ৭ জন৷ হুগলি ৪ জন৷ পশ্চিম বর্ধমান ১ জন৷ পূর্ব মেদিনীপুর ৩ জন৷ পশ্চিম মেদিনীপুর ১ জন৷ নদিয়া ৪ জন৷ মালদা ২ জন৷ জলপাইগুড়ি ২ জন৷ দার্জিলিং ১ জন৷ আলিপুরদুয়ার ২ জন৷

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।