সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়: সে দিনটা ছিল শুক্রবার। এক বছর পর পৃথিবী এক দিন এগিয়েছে। ১৩ই জুলাই, ২০১৯ শনিবার। ২০১৮তে বিশ্বকাপ ফুটবলের ফ্রান্স – ক্রোয়েশিয়ার লড়াই দেখার জন্য অপেক্ষায় ছিল। তখনই পর্বতে হারিয়ে গিয়েছিলেন পেম্বা শেরপা। আর কোনওদিন খুঁজে পাওয়া যায়নি তাঁর দেহ। হারিয়ে গিয়েছিলেন কারাকোরামের পথে। K-2 হয়তো তাঁকে জিজ্ঞাসা করেনি কে তুই? তাই বহু পর্বতারোহীকে শৃঙ্গে পৌঁছে দিয়েও ফিরে আসা হয়নি প্রবাদ প্রতিম শেরপার।

ওই দিন সকাল ৮-৩০ নাগাদ কারাকোরামের সাসের কাংরি-IV শৃঙ্গে সফল অভিযান শেষে নেমে আসছিলেন আটবার এভারেস্ট জয়ী দুরন্ত পর্বতারোহী পেম্বা শেরপা । এ দেশের সমস্ত পর্বতপ্রেমী মানুষের ‘পেম্বাজী’। তাঁর হাত ধরে বহু পর্বত শৃঙ্গে পা ফেলেছেন বহু পর্বতারোহী। পাহাড়ের প্রতিকূল পরিবেশে তাঁরই বাড়িয়ে দেওয়া হাত রক্ষা করেছে কত অমূল্য প্রাণ। সদা সতর্ক সেই মানুষটিই হারিয়ে যান হিমবাহের চোরা ফাটলের গহ্বরে। অসহায় সাথীদের উদ্ধারকাজের প্রাণপাত প্রয়াস বিফলে গিয়েছিল।

ব্রাজিল আর্জেন্টিনা ভক্ত ভারতের ফুটবল প্রেমীরা যখন ক্রোয়েশিয়ার হয়ে গলা ফাটাচ্ছিলেন ৩-১ হয়ে যাওয়ার পরেও একটা মিরাকল হওয়ার আসা করছিলেন তখনই এমবাপের আরও একটা গোল এবং তিন গোলে পিছিয়ে যাওয়া ছোট্ট দেশটার। বিশাল দেশ ভারতবর্ষের অতি কম পর্বতপ্রেমীরা তেমনই মিরাকলের প্রার্থনা করছিলেন। মনে মনে অনেক অজানা অচেনা মুখ চেয়েছিল অলৌকিক কিছু। ফিরে আসুক হার না মানা মানুষটা।

না ফুটবল বিশ্বকাপের ফলের মতোই তেমন কিছু ঘটেনি। রাশিয়ায় অঝোর ধারায় বৃষ্টিতে কাপ হাতে মাতল ফ্রান্সের ফুটবলাররা। বৃষ্টিতে হারিয়ে গিয়েছিল লুকা মদ্রিচ, মাঞ্জুকিচ, পেরিসিচদের প্রথমবার বিশ্ব জয়ের স্বপ্ন, তেমন ভাবেই হিমবাহের গহ্বরে হারিয়ে গিয়েছিল শেরপার ফিরে আসার আশা। আজও ফিরে আসতে পারেনি পেম্বাজীর দেহটুকুও। কারাকোরামের তুষার শয্যায় আজও কোথাও বিশ্রাম নিচ্ছেন ভারতীয় পর্বতারোহণকে এক অন্য মাত্রায় তুলে আনা প্রবাদপ্রতিম পেম্বা শেরপা। হারিয়ে যাওয়ার এমন দিনে তাঁকে স্মরণ KOLKATA24X7-এর।