মেলবোর্ন: ব্যাট হাতে জয় করেছেন অজস্র ফ্যানের মন৷ কিন্তু মাঠে তাঁর আচরণ আবার সমালোচিত হয়েছে৷ পারথে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে অজি অধিনায়কের সঙ্গে ভারত অধিনায়কের এই হেন আচরণকে ভালো চোখে দেখেননি অনেকেই৷ তবে মাঠে বিরাট কোহলির এই আগ্রাসনকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক অ্যালান বর্ডার৷

আরও পড়ুন: পারথে সেঞ্চুরি করে সিংহাসন ধরে রাখলেন বিরাট

১৪৬ পারথ টেস্ট জিতে চার ম্যাচের সিরিজে সমতা (১-১) ফিরিয়েছে অস্ট্রেলিয়া৷ ক্যাপ্টেন কোহলির ব্যাটে দুরন্ত সেঞ্চুরি সত্ত্বেও টেস্টে নাস্তানাবুদ হয়েছে ভারত৷ ২৮৭ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ১৪০ রানে গুটিয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া৷ দল হারের পাশাপাশি পারথ টেস্টে বিরাটের আচরণে অন্তোষ প্রকাশ করেছেন অনেকেই৷ মাইক হাসি, মিচেল জনসন এবং সঞ্জয় মঞ্জেরেকররা যখন বিরাটের আচরণে সমালোচনা করছেন৷ ঠিক তখন বিরাটের আগ্রাসনকে সাধুবাদ জানিয়েছেন কিংবদন্তি অজি ব্যাটসম্যান বর্ডার৷ ক্রিকেটকে বাঁচাতে এই ধরনের ব্যক্তিত্বের প্রয়োজন বলেও মনে করেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক৷

আরও পড়ুন: স্যান্ড পেপার কেলেঙ্কারি এবার বিজ্ঞাপনে

ফক্স ক্রিকেটের ‘দ্য ফলো-অন’ অনুষ্ঠানে বর্ডার বলেন, ‘এই মুহূর্তে ক্রিকেটে বিরাটের মতো চরিত্র কম রয়েছে৷ আমি খুব বেশি ক্যাপ্টেনকে দেখিনি, তাঁর দল উইকেট তুলে নেওয়ার পর এত উত্তেজিত হতে৷ এটা দরকার৷ এই প্যাশনটা ভীষণ দরকার৷’ পারথ টেস্টের চতুর্থ দিন অজি অধিনায়াক টিম পেইনের সঙ্গে চোখে চোখ রেখে বিরাটের বকবিতন্ডা অনেকের কাছে সামালোচিত হলেও তাঁর আগ্রাসনের প্রশংসা করেছেন বর্ডার৷ শেষ আম্পায়ার এসে বিরাট-পেইনের ছায়াযুদ্ধ থামায়৷

ভারত অধিনায়কের আগ্রাসন সম্পর্কে বলতে গিয়ে বর্ডার জানান, ‘দেশের বাইরে সিরিজ জিততে বিরাট উদগ্রীব৷ টেস্টের এক নম্বর দল হিসেবে ভারতের সেটা করার ক্ষমতা রয়েছে৷ ক্যাপ্টেন হিসেবে বিরাটের মধ্যে সেটাই ধরা পড়ছে৷’ চলতি বছরে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ হেরে অস্ট্রেলিয়ায় পা-রেখেছে টিম কোহলি৷ এছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথমবার টেস্ট সিরিজের স্বাদ পেতে মরিয়া ভারত৷ ১২বারের অজি সফরে কোনওবার টেস্ট সিরিজ জিতে দেশে ফেরেনি টিম ইন্ডিয়া৷

বর্ডার আরও বলেন, ‘দলকে এক নম্বরে পৌঁছনো কম কৃতিত্বের নয়৷ কিন্তু ক্যাপ্টেন হিসেবে বিদেশে টেস্ট সিরিজ জয় স্বপ্ন৷’ প্রাক্তন অজি অধিনায়ক ক্যাপ্টেন কোহলির প্রশংসা করে বলেন, ‘কোহলি সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছে৷ কিন্তু দল ওর মতো আর চরিত্র কোথায়৷ দলের বাকিরা ভালো ক্রিকেটার৷ কিন্তু তাদের সেই প্যাশনটা নেই৷’

আরও পড়ুন: বক্সিং ডে টেস্টের আগে বিরাটকে টিপস সৌরভের

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।