পুণে: ঘরের মাঠে টানা দ্বিতীয় টেস্টে ময়াঙ্কের শতরান, অর্ধশতরানে পূজারার ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত, দীর্ঘদিন বাদে একাদশে উমেশের স্মরণীয় কামব্যাক, অশ্বিনের ৬ উইকেট সর্বোপরি ঘরের মাঠে টানা ১১টি টেস্ট সিরিজ জিতে বিশ্বরেকর্ড। পুণে টেস্টে টিম ইন্ডিয়াকে নিয়ে চর্চা করার মত উপপাদ্য বিষয় একাধিক। তবু এসবের মধ্যেও অধিনায়ক বিরাট কোহলির ম্যারাথন ২৫৪ রানের (অপরাজিত) ইনিংস পুণে টেস্টে ছাপিয়ে গিয়েছে বাকি সবকিছুকে। আর বিশ্বরেকর্ড গড়ে ম্যাচ শেষে কোহলি নিজেই ফাঁস করলেন তাঁর ম্যারাথন ইনিংসের রহস্য।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সর্বাধিক ব্যবধানে টেস্ট জয়ের পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এদিন ভারত অধিনায়ক জানালেন তাঁর অপরাজিত ২৫৪ রানের গোপন রহস্য। ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরস্কার হাতে সঞ্চালক সঞ্জয় মঞ্জরেকরের প্রশ্নের উত্তরে বিরাট সাফ জানালেন পুণে টেস্টে তাঁর এই ম্যারাথন ইনিংস এসেছে কোনওরকম পরিকল্পনা ছাড়াই। ভারত অধিনায়কের কথায়, ‘দিনদু’য়েক আগেই জানিয়েছিলাম অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ববোধ প্রচুর। যদি তুমি দ্বিশতরান করার পরিকল্পনা করে ক্রিজে নামো তাহলে কখনোই তা সম্ভব হবে না। কিন্তু তুমি যদি মনে কর যে তোমায় পাঁচটা সেশন ক্রিজ আঁকড়ে থেকে ব্যাটিংটা চালিয়ে যেতে হবে, তাহলে দ্বিশতরান এমনিই ধরা দেবে।’

এখানেই শেষ নয়। ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে বর্তমানে সর্বাধিক দ্বিশতরানের মালিকের কথায়, ‘কখনও কখনও ব্যাটসম্যানরা সমালোচনার জবাব দিতে মাঠে নামে। কিন্তু এইমুহূর্তে আমি এমন একটা পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে রয়েছি যেখানে আমি নিজের খেলাটা উপভোগ করি। যেখানে দাঁড়িয়ে আমার একমাত্র লক্ষ্য থাকে দলকে শক্ত ভিতের উপর দাঁড় করানো।’

মূলত অধিনায়কের অপরাজিত দ্বিশতরানে ভর করেই পুণে টেস্টের প্রথম ইনিংসে প্রোটিয়াদের ৬০১ রানের বিরাট বোঝ চাপিয়ে দেয় টিম ইন্ডিয়া। প্রথমে ডেপুটি আজিঙ্কা রাহানের সঙ্গে ১৭৮ রানের পার্টনারশিপ এবং পরে রবীন্দ্র জাদেজার সঙ্গে ২২৫ রানের জুটিতে একাধিক নজির গড়েন কোহলি। তা সে সচিন-সেহওয়াগকে ছাপিয়ে ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সর্বাধিক দ্বিশতরানের নজির গড়াই হোক কিংবা অধিনায়ক হিসেবে ডন ব্র্যাডম্যানকে ছাপিয়ে সর্বাধিক (৯) ১৫০ বা তার বেশি রানের স্কোর করাই হোক।

ম্যারাথন ইনিংসের রহস্য ফাঁস করার পাশাপাশি এদিন রাহানের সঙ্গে ব্যাটিং উপভোগ করার কথাও জানান কোহলি। অধিনায়কের কথায়, ‘ওর মনোসংযোগ দুর্দান্ত। আমাদের মধ্যে বোঝাপড়া এবং রানিং বিটুইন দ্য উইকেটটা বেশ ভালো। আমরা সম্ভবত দলের সবচেয়ে সফল জুটি কারণ আমরা দলের জন্য খেলি। ক্রিজে উলটোদিকে রাহানেকে পেলে ফোকাস করতে ভীষণ সুবিধা হয়।’

পুণে টেস্টে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে এক ইনিংস ও ১৩৭ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করার পাশাপাশি ঘরের মাঠে টানা ১১টি টেস্ট সিরিজ জিতে বিশ্বরেকর্ড গড়ল টিম ইন্ডিয়া। এই জয়ের সুবাদে ভারত এক ম্যাচ বাকি থাকতেই তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নিল তাঁরা এবং ২০০ পয়েন্ট নিয়ে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ টেবিলের শীর্ষস্থান মজবুত করল কোহলিব্রিগেড।